Advertisement

স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডে ঋণ দিচ্ছে না একাধিক ব্যাংক, জেলাশাসকদের নজরদারির নির্দেশ নবান্নের

08:08 PM Oct 20, 2021 |

মলয় কুণ্ডু: রাজ্যের ছাত্রছাত্রীদের উচ্চশিক্ষায় যাতে অর্থের কোনও অভাব না হয়, তার জন্য ঋণের সংস্থান করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। চালু করেছেন স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড (Student Credit Card)। বহু ছাত্রছাত্রী এ রাজ্যে পড়ার পাশাপাশি দেশের অন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ পাচ্ছেন এই প্রকল্প থেকে। কিন্তু বেশ কিছু ব্যাংক ছাত্রছাত্রীদের ঋণ দিতে চাইছে না। বিভিন্ন বাহানা করে তাঁদের হয়রানি করছে। বিষয়টি রাজ্য সরকারের গোচরে আসতেই একাধিকবার ব্যাংকগুলিকে সতর্ক করা হয়েছে।

Advertisement

সম্প্রতি নবান্নে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড নিয়ে পর্যালোচনা বৈঠক হয়। সেখানে যে ব্যাঙ্কগুলি ঋণ দিতে চাইছে না, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আলোচনা হয়েছে। প্রশাসন সূত্রে খবর, বেশ কিছু সমবায় ব্যাংক স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডে ছাত্রছাত্রীদের ঋণ দিচ্ছে না। জেলাশাসকদের এ বিষয়ে নজর দিতে নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন। যাতে যে ব্যাংকগুলি ঋণ দিতে সমস্যা করছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি দ্রুত মীমাংসা করা সম্ভব হয়।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: লক্ষ্মীপুজোর সকালে বারাকপুরে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, ভাঙল বাড়ির একাংশ, জখম ২]

অন্যদিকে আবার দুয়ারে রেশন প্রকল্পে যাতে সঠিক পরিমাণ খাদ্যদ্রব্য উপভোক্তাদের কাছে পৌঁছয়, তার জন্য কড়া নজরদারি চায় রাজ্য সরকার। কোনওভাবেই যেন উপভোক্তারা প্যাকেটজাত এই রেশনে কম না পান, তার জন্য ব্যবস্থা নিতে জেলাশাসকদের নির্দেশ দিল নবান্ন। একইসঙ্গে বাকি থাকা রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের যোগ দ্রুত করে ফেলার কথাও বলা হয়েছে।

নবান্ন সূত্রে খবর, ছট পুজোর পরই দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কাজ পুরোদমে চালু করে দিতে চায় রাজ্য সরকার। তা নিয়েই পর্যালোচনা বৈঠক করেন মুখ্যসচিব। ছিলেন রাজ্যের জেলাশাসকরা। সেই বৈঠকেই জেলাশাসকদের নির্দেশদেওয়া হয়, দুয়ারে রেশন প্রকল্পে যাতে উপভোক্তারা সঠিক পরিমাণে বরাদ্দ খাদ্যদ্রব্য পান, তা নিশ্চিত করতে। এমনিতেই অনেক সময় রেশনে কম দেওয়ার অভিযোগ তোলেন উপভোক্তারা। তা নিয়ে অশান্তিও হয় অনেক জায়গায়। এই বিষয়টি সম্পর্কে যথেষ্ট ওয়াকিবহাল প্রশাসনও। সেক্ষেত্রে দুয়ারে রেশন প্রকল্পে যখন চাল, গম বা অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য উপভোক্তার দুয়ারে হাজির করা হবে, তখন যদি এই ধরনের অভিযোগ ওঠে, তাহলে একদিকে যেমন সরকারের ভাবমূর্তির সমস্যা হবে, তেমনই ডিলারদের কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলার সমস্যা হতে পারে। এই সমস্যা যাতে না হয়, তার জন্য জেলাশাসকদের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে খবর। ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ডের যোগ করে ফেলেছে। সামান্য কিছু বাকি রয়েছে বলে খবর। সেই কাজও দ্রুত শেষ করার কথা বলা হয়েছে। যাতে রেশন পাওয়ার ক্ষেত্রে উপভোক্তাদের কোনও সমস্যা না হয়।

[আরও পড়ুন: বিপর্যস্ত উত্তরাখণ্ডে আটকে হুগলির আরও এক পরিবার, প্রশাসনের কাছে সাহায্যের আরজি]

Advertisement
Next