ঝাড়খণ্ডের পাকুরে বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে মৃত বেড়ে ১৭, শোকপ্রকাশ প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতির

08:57 AM Jan 06, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঘন কুয়াশার অন্ধকার কেড়ে নিল ১৭টি প্রাণ! ঝাড়খণ্ডের পাকুরে (Pakur) ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনায় আহত হলেন আরও অন্তত ২৫ জন। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

Advertisement

দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকালে সাড়ে আটটা নাগাদ ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) গোবিন্দপুর-সাহেবগঞ্জ রাজ্য সড়কের উপরে। যাত্রীবাহী বাসটি ৪৫-৫০ জন যাত্রী নিয়ে সাহেবগঞ্জের বাড়হাড়োয়া থেকে দেওঘরের দিকে যাচ্ছিল। সেসময় উলটোদিক থেকে আসা একটি গ্যাস সিলিন্ডার বোঝাই ট্রাক বাসটিতে ধাক্কা মারে। প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হচ্ছে ঘন কুয়াশার মধ্যে দৃশ্যমানতার অভাবই এই দুর্ঘটনার কারণ।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: দায়িত্ব নিতে না পারলে পদ ছাড়ুন, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার প্রশ্নে চান্নিকে তোপ অমরিন্দরের]

স্থানীয় সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এই দুর্ঘটনায় ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত অন্তত ২৫। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের আঘাত বেশ গুরুতর। একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাসটি এমনভাবে পড়েছিল যে ভিতরে আটকে থাকা যাত্রীদের উদ্ধার করতে সময় লেগে যায়। যার ফলে হতাহতের সংখ্যা বেড়ে যায়। ঝাড়খণ্ড পুলিশ জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে ৫ জন সাহেবগঞ্জের বাসিন্দা, ৩ জন করে পাকুর এবং দুমকার বাসিন্দা। একজন বাংলার বাসিন্দাও রয়েছেন।

[আরও পড়ুন: দেশে ওমিক্রনে প্রথম মৃত্যু রাজস্থানে, আটদিনে সংক্রমণ বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৬ গুণ, জানাল স্বাস্থ্যমন্ত্রক]

এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) এবং রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Ramnath Kovind)। ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনও (Hemant Soren) ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন। কেন্দ্র সরকারের তরফে দুর্ঘটনায় মৃতদের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকা করে অনুদান ঘোষণা করা হয়েছে। আহতরা পাবেন ৫০ হাজার টাকা করে। রাজ্য সরকারের তরফেও মৃতদের পরিবার পিছু এক লক্ষ টাকা করে অনুদান ঘোষণা করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী সোরেন জানিয়েছেন, আহতদের দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে রাজ্য সরকার।

Advertisement
Next