Advertisement

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে রেকর্ড গড়তে ‘ভুয়ো’টিকাকরণ! ভূরি ভূরি অভিযোগ মধ্যপ্রদেশে

05:48 PM Sep 23, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Narendra Modi) জন্মদিনে কোভিড টিকাদানে রেকর্ড করেছে দেশ। এমনটাই দাবি কেন্দ্রীয় সরকারের। কিন্তু যত সময় যাচ্ছে, ততই এই দাবি নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। অভিযোগ, মৃত ব্যক্তিদেরও টিকা দিয়েছে কেন্দ্র। তাদের নামে ইস্যু হয়েছে শংসাপত্র। শুধু তাই নয়, টিকা (COVID-19 Vaccination) না নিয়েও অনেকে পেয়েছেন সার্টিফিকেট। বিজেপি-শাসিত রাজ্য মধ্যপ্রদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মিলছে অভিযোগ।

Advertisement

১৭ সেপ্টেম্বর ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিন। সেদিনই করোনার টিকাদানে রেকর্ড গড়ে ভারত। একদিনে আড়াই কোটি টিকা দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করে কেন্দ্রীয় সরকার। এর মধ্যে শিবরাজ সিং চৌহানের মধ্যপ্রদেশে একদিনে ২৭ লক্ষ টিকাকরণ হয়। কিন্তু ক্রমশ সে রাজ্য থেকে একাধিক অভিযোগ সামনে আসছে।

[আরও পড়ুন: বিমানে বসেও কাজে মগ্ন প্রধানমন্ত্রী, ‘প্রচার কৌশল’, ছবি দেখে নেটিজেনদের কটাক্ষ]

 
১৭ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টা নাগাদ মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপাল থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে থাকা আগর মালওয়া জেলার বাসিন্দা আশুতোষ শর্মার মোবাইলে একটি মেসেজ আসে। যেখানে বলা হয়, ওই দিন কোভিড টিকা নিয়েছেন বিদ্যা শর্মা। বিদ্যাদেবী আশুতোষের মা। তিনি মৃতা। বিদ্যাদেবীর ডেথ সার্টিফিকেটও রয়েছে। অথচ তিনি টিকা পেয়েছেন বলে মেসেজ এসেছে তাঁর ছেলের কাছে। আশুতোষের কথায়, “চারমাসে আগে করোনায় আমার মায়ের মৃত্যু হয়েছে। বোঝাই যাচ্ছে টিকাকরণের সংখ্যা বাড়ানো নিয়ে সরকারি কর্মীদের উপর চাপ তৈরি করা হয়েছে।”

৭ সেপ্টেম্বর টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার কথা ছিল আগার এলাকার বাসিন্দা পিংকি বর্মার। কিন্তু তিনি অসুস্থ। ফলে টিকা নিতে পারেননি। তারপরেও ১৭ সেপ্টেম্বর তাঁর ফোনে টিকা নেওয়ার সার্টিফিকেট চলে আসে। এমনকী, ১৩ বছরের এক শিশুর নামেও সার্টিফিকেট ইস্যু করা হয়েছে। মধ্যপ্রদেশের একাধিক এলাকা থেকে এ ধরনের একাধিক অভিযোগ প্রকাশ্যে এসেছে। যার জেরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

[আরও পড়ুন: TMC in Tripura: ত্রিপুরায় অভিষেকের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলায় স্থগিতাদেশ, স্বস্তিতে তৃণমূল]

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিনে টিকাকরণের রেকর্ড গড়ার লক্ষ্যে অনেকদিন ধরেই পরিকল্পনা সাজিয়েছিল কেন্দ্র। প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরে সেইমতো নির্দেশও দেওয়া হয়েছিল। এমনকী, শুক্রবারের নির্ধারিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে গত কয়েকদিন অপেক্ষাকৃত কমহারে টিকাকরণ হচ্ছিল বলেও অভিযোগ করেছেন আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব (Tejashwi Yadav)। যদিও কেন্দ্রের দাবি গোটা দেশের স্বাস্থ্যকর্মীদের সার্বিক চেষ্টায় শুক্রবার চিনের রেকর্ড ভেঙে আড়াই কোটি মানুষকে টিকা দিতে পেরেছে ভারত।

Advertisement
Next