Advertisement

UP Election 2022: উন্নয়ন হয়নি, প্রচারে যাওয়া বিজেপি বিধায়ককে তাড়া করে গ্রামছাড়া করল ভোটাররা

12:48 PM Jan 20, 2022 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরের মাসেই ভোট। ভোটের দামামা তাই পুরোদস্তুর বাজতে শুরু করেছে উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh)। প্রার্থীরা জোরকদমে প্রচারও শুরু করে দিয়েছেন। এমতাবস্থায় নিজের বিধানসভা এলাকার এক গ্রামে গিয়ে এমন নাজেহাল হতে হবে তা বোধহয় ভাবতে পারেননি বিজেপি (BJP) বিধায়ক বিক্রম সিং সাইনি। অভিযোগ, গ্রামবাসীদের একাংশ বিক্রম গ্রামে আসার পরই এমন বিরোধিতা শুরু করেন ও স্লোগান দিতে থাকেন যার জেরে শেষ পর্যন্ত প্রচার না করেই ফিরে যেতে বাধ্য হন ওই বিধায়ক। এই ঘটনায় শুরু হয়েছে বিতর্ক।

Advertisement

কেন ওই বিজেপি বিধায়কের উপরে এত খাপ্পা গ্রামবাসী? জানা যাচ্ছে, খাটুলি নামের ওই গ্রামের বহু বাসিন্দার অভিযোগ, এলাকায় কোনও উন্নয়নই গত ৫ বছরে। আর সেই কারণেই তাঁরা বিরোধিতা করেছেন। স্লোগান দিয়েছেন ওঁর গাড়িকে ঘিরে। তবে এমনটাও মনে করা হচ্ছে বিতর্কিত কৃষি আইন বাতিল করে দেওয়া হলেও আন্দোলনকে ঘিরে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে তৈরি হওয়া ক্ষোভও এই অসন্তোষের পিছনে থাকতে পারে।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: টেলিপ্রম্পটার বিভ্রাট ঘটেনি, প্রযুক্তিগত সমস্যায় থমকে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী, দাবি বিজেপির]

বিক্রমের অবশ্য দাবি, গ্রামের একটি স্কুলের মধ্যে বসে মদ্যপান করছিলেন বেশ কয়েকজন। তিনি সেই দৃশ্য দেখে প্রতিবাদ করেছিলেন। সেখান থেকেই বিতর্কের সূত্রপাত। এরপরই তাঁকে পালটা বিরোধিতার মুখে পড়তে হয়। যাঁরা বিরোধিতা করে স্লোগান দিয়েছেন তাঁরা বিরোধী জোটের সদস্য-সমর্থক বলেও দাবি বিক্রমের।

Advertising
Advertising

ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে ঘটনার ভিডিও। তাতে দেখা গিয়েছে, বিক্রম গাড়ি থেকে নামতে যেতেই তাঁকে বিরোধিতার মুখে পড়তে হয়। পরিস্থিতি প্রতিকূল দেখে তিনি হাতজোড় করে মিনতিও করেন। পরে অবশ্য বেগতিক বুঝে ওই গাড়িতেই তিনি গ্রাম থেকে বেরিয়ে যান।

[আরও পড়ুন: দিল্লিতে এবারেও প্রধান অতিথি-হীন সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠান, থাকছে বহু বিধিনিষেধ]

এই বিজেপি নেতা এর আগে বহুবার বিতর্কে জড়িয়েছেন। ২০১৯ সালে তিনি বলেছিলেন, যাঁরা ভারতে নিরাপদ অনুভব করেন না তাঁদের বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়া হবে। তারও আগে তিনি বলেছিলেন, ‘‘আমাদের দেশের নাম হিন্দুস্তান, যার অর্থ এটা হিন্দুদেরই দেশ।’’ যাঁরা গোহত্যা করছে, তাদের পা ভেঙে দেওয়ার হুমকি দিতেও দেখা গিয়েছিল বিক্রম সাইনি নামের এই বিজেপি বিধায়ককে।
উল্লেখ্য, ১০ ফেব্রুয়ারি যোগীরাজ্যের নির্বাচন। সাত দফায় ভোট হবে। পরে ১০ মার্চ ফলপ্রকাশ।

Advertisement
Next