Advertisement

‘আমিই কংগ্রেসের পূর্ণ সময়ের সভাপতি’, দলের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে ঘোষণা সোনিয়ার

04:02 PM Oct 16, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ”আমিই কংগ্রেসের পূর্ণ সময়ের সভাপতি।” ৯ মাস পরে কংগ্রেসের কার্যনির্বাহী বৈঠকে এই ঘোষণা করলেন সোনিয়া গান্ধী (Sonia Gandhi)। শনিবার শুরু হয়েছে এই বৈঠক। জি-২৩ তথা কংগ্রেসের (Congress) বিদ্রোহী নেতারা এই বৈঠকের দাবি জানিয়ে আসছিলেন বহুদিন ধরে। অবশেষে সেই বহু প্রতীক্ষিত বৈঠক শুরু হয়েছে। আর বৈঠক শুরু হতেই তাঁর সূচনার সময় সোনিয়া জানিয়ে দিলেন, কংগ্রেসে তিনিই পূর্ণ সময়ের জন্য সভাপতি। কয়েক দিন আগেই কপিল সিব্বল বলেছিলেন, কংগ্রেসের কোনও পূর্ণ সময়ের সভাপতি নেই। মনে করা হচ্ছে, সেই খোঁচারই পালটা জবাব দিলেন বর্ষীয়ান নেত্রী।

Advertisement

এই প্রথম সোনিয়াকে দলের বৈঠকে দলগত ঐক্য নিয়ে মুখ খুলতে দেখা গেল। তিনি বলেন, ”সমগ্র সংগঠনই কংগ্রেসের প্রত্যাবর্তন চায়। কিন্তু এর জন্য দলগত ঐক্য থাকা প্রয়োজন। দলের প্রয়োজনীয়তাকেই সবথেকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। সবচেয়ে বড় কথা, এর জন্য আত্মনিয়ন্ত্রণ ও শৃঙ্খলা।” এরপরই তিনি জি-২৩ নেতাদের উদ্দেশে জানিয়ে দেন, তাঁর সঙ্গে কথা বলতে হলে সংবাদমাধ্যমকে জড়ানোর প্রয়োজন নেই। সরাসরি তাঁকেই বলা যাবে।

[আরও পড়ুন: জন্মদিনের পার্টিতে তরুণী চিকিৎসককে ‘ধর্ষণ’, পলাতক এইমসের সিনিয়র ডাক্তার]

এদিনের বৈঠকে আগামী বিধানসভা বৈঠকগুলি নিয়েও মুখ খুলতে দেখা যায় সোনিয়াকে। তাঁর কথায়, ”কিছুদিন আগে থেকেই আমাদের বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। নানা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয়েছে আমাদের। কিন্তু যদি আমাদের মধ্যে একতা থাকে, যদি আমরা শৃঙ্খলা মেনে চলি আর দলের প্রয়োজনকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিই, তাহলে আমরা ভাল করবই সে ব্যাপারে আমরা আত্নবিশ্বাসী।”

দিল্লিতে চলছে ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক। সেখানে উপস্থিত জি-২৩ নেতারাও। উল্লেখ্য, কংগ্রেসের যে ২৩ জন নেতা গত বছর সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখে আরজি জানিয়েছিলেন, দলে বড় পরিবর্তন আনা হোক। সেই সঙ্গে কাউকে পূর্ণ সময়ের সভাপতি নিয়োগ করা হোক। প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পরে রাহুল গান্ধী দলের সভাপতির পদ ছেড়ে দেন। এরপরই দলের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি হন সোনিয়া। 

[আরও পড়ুন: ছত্তিশগড়ের রায়পুরে আধা সামরিক বাহিনীর ট্রেনে বিস্ফোরণ, আহত ৬ জওয়ান]

Advertisement
Next