ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকে যোগ দিতে দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী, মোদির সঙ্গে সাক্ষাতের সম্ভাবনা

01:30 PM Dec 09, 2023 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিন দশেক বাদেই ফের দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। জোড়া লক্ষ্য নিয়ে রাজধানীতে পা রাখছেন মমতা। তাঁর মূল উদ্দেশ্য ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকে যোগ দেওয়া। তবে একই সঙ্গে রাজ্যের বকেয়া জট কাটানোর লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করতে পারেন তিনি। ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Advertisement

নবান্ন (Nabanna) সূত্রের খবর, আগামী ১৭ ডিসেম্বর রাজধানীতে উড়ে যেতে পারেন মমতা। ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত দিল্লিতেই থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী। ইন্ডিয়া (INDIA) জোটের বৈঠকে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি শরিকদের সঙ্গে আলাদা আলাদা করেও সাক্ষাৎ করতে পারেন মমতা। ১৮-১৯ এবং ২০ ডিসেম্বর ঠাসা কর্মসূচি রয়েছে মমতার। ২১ তারিখ কলকাতায় ফিরবেন তৃণমূল নেত্রী। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, “কেন্দ্র রাজ্য সরকারকে কার্যত আর্থিক অবরোধের মুখে ফেলেছে। ১০০ দিনের কাজের টাকা দিচ্ছে না, বাংলার বাড়ির টাকা দিচ্ছে না, স্বাস্থ্য মিশনের টাকা দিচ্ছে না। আমরা ওদের টাকা চাইছি না। বাংলার প্রাপ্য টাকার ভাগ চাইছি। সেটাও দিচ্ছে না। এসব নিয়ে কথা বলতে আমি প্রধানমন্ত্রীর সময় চেয়েছি। “

[আরও পড়ুন: ভিনরাজ্যের কোচিংয়ে ডামি পরীক্ষার্থীদের রমরমা, অন্যের হয়ে পরীক্ষা দিলেই মিলছে ৪০ হাজার!]

১৮, ১৯, ২০ ডিসেম্বরের মধ্যেই ইন্ডিয়া জোটের বৈঠক হওয়ার কথা। বৈঠকের প্রধান আলোচ্য বিষয় আসনরফা। ওই বৈঠকেই ইন্ডিয়া (INDIA) জোটে থাকা বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি নিজেদের মধ্যে আসন ভাগাভাগি নিয়ে আলোচনা শুরু করতে চলেছে। জানুয়ারি মাসে ইন্ডিয়ার আরও একটি বৈঠক ডাকা হতে পারে এবং সেখানেই আসন ভাগাভাগি নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। সেই বৈঠকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছেন তৃণমূল নেত্রী। 

[আরও পড়ুন: নিয়োগ দুর্নীতি মামলা: ভারচুয়াল নয়, শুনানিতে সশরীরে আদালতে যাওয়ার আর্জি পার্থর]

ইন্ডিয়া বৈঠকে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি সংসদে তৃণমূলের দলীয় দপ্তরে যেতে পারেন মমতা। তাছাড়া বাংলার বকেয়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বৈঠকের সম্ভাবনাও প্রবল। ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) সঙ্গে সাক্ষাতের সময় চেয়েছেন মমতা।  প্রধানমন্ত্রীর সময় মিললে দুজনের বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা। এবং সেখানেই ফের কেন্দ্রের থেকে রাজ্যের প্রাপ্য বকেয়া মিটিয়ে দেওয়ার আবেদন জানাবেন মুখ্যমন্ত্রী।

Advertisement
Next