Advertisement

ভোটের মুখে মাস্টারস্ট্রোক! পেট্রল-ডিজেলকে জিএসটির আওতায় আনার প্রস্তাব কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

04:53 PM Feb 23, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পেট্রল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে দেশজুড়ে বিস্তর জলঘোলা হচ্ছে। সমবেতভাবে পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির জন্য কেন্দ্রের মুণ্ডুপাত করছে বিরোধী শিবির। এরই মধ্যে পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান (Dharmendra Pradhan) রীতিমতো গুগলি ছুঁড়লেন বিরোধী শিবিরের দিকে। ইঙ্গিত দিলেন, দ্রুত জিএসটির (GST) আওতায় আসতে পারে পেট্রোপণ্য। বললেন, কেন্দ্র সরকার শুরু থেকেই পেট্রল এবং ডিজেলকে জিএসটি কাউন্সিলের আওতায় আনার পক্ষে। এতে সাধারণ মানুষের উপকার হবে। তবে, এই সিদ্ধান্ত পুরোপুরিই জিএসটি কাউন্সিলকে নিতে হবে।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

পেট্রোলিয়াম মন্ত্রীর আগে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণও (Nirmala Sitharaman) ইঙ্গিত দিয়েছিলেন পেট্রোপণ্যকে জিএসটির আওতায় আনতে চায় কেন্দ্র। তিনি জানান, “পেট্রোপণ্যের উত্তরোত্তর মূল‌্যবৃদ্ধি উদ্বেগজনক। দাম কমাতে কেন্দ্র এবং রাজ্যগুলিকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আমরা পেট্রল-ডিজেলকে জিএসটির আওতায় আনার কথা বলেছি। তবে সেটা নির্ভর করছে জিএসটি কাউন্সিলের উপর।” অর্থমন্ত্রী এবং পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী দু’জনেই পেট্রোপণ্যকে জিএসটির আওতায় আনার কথা বললেও এক্ষেত্রে বাধা হতে পারে জিএসটি কাউন্সিল। কারণ, জিএসটি কাউন্সিলে কেন্দ্রের পাশাপাশি রাজ্যগুলির প্রতিনিধিরাও আছেন। পেট্রোপণ্যকে পণ্য ও পরিষেবা করের আওতায় আনতে চাইলে রাজ্যগুলি বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ, এমনিতেই পেট্রপণ্যে রাজ্যের তুলনায় অনেক বেশি কর পায় কেন্দ্র। তার উপর জিএসটির আওতায় এলে রাজ্যের লভ্যাংশ আরও কমবে। ২০১৭ সালে যখন জিএসটি চালু হল, তখন মূলত রাজ্যগুলির আপত্তিতেই পেট্রোপণ্যকে এর অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: রাজ্যের থেকে অনেক বেশি কর কেন্দ্রের! পেট্রোপণ্যের দাম নিয়ে কাঠগড়ায় মোদি সরকার]

তাছাড়া, ঊর্ধ্বমুখী জ্বালানির মূল্য নিয়ন্ত্রণে বেশ কয়েকটি রাজ্য ইতিমধ্যেই উদ্যোগী হয়েছে। ইতিমধ্যেই কংগ্রেস (Congress) শাসিত রাজস্থান এবং ছত্তিশগড় পেট্রপণ্যের উপর করছাড় দিয়েছে। বিজেপি শাসিত অসম করোনাকালে পেট্রল এবং ডিজেলের উপর যে অতিরিক্ত সেস বসিয়েছিল, তা প্রত্যাহার করেছে। একধাক্কায় অনেকটা দাম কমিয়েছে মেঘালয় সরকার। গতকাল পশ্চিমবঙ্গ সরকারও পেট্রল-ডিজেলে একটাকা করে সেস কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সব মিলিয়ে ১৮টি রাজ্য ইতিমধ্যেই পেট্রোপণ্যে ভ্যাট কমিয়েছে। একের পর এক রাজ্য যখন জ্বালানির দাম কমাতে এভাবে উদ্যোগী হচ্ছে, তখন মোদি সরকার কার্যত নির্বিকার। কিন্তু সূত্রের খবর, পেট্রোপণ্যকে জিএসটির আওতায় আনার প্রস্তাব দিয়ে এবার নিজেদের উপর থেকে দায় ঝেড়ে রাজ্যগুলির কোর্টেই বল ঠেলতে চাইছে কেন্দ্র।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next