Advertisement

তৃণমূলে যোগের জল্পনায় ইতি! রাহুলের সঙ্গে সাক্ষাতের পর কংগ্রেসেই থাকার সিদ্ধান্ত মুকুল সাংমার

09:52 PM Oct 04, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আপাতত ‘হাত’ ছাড়ছেন না মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা (Mukul Sangma) এবং তাঁর অনুগামীরা। রবিবার রাহুল গান্ধীর (Rahul Gandhi) সঙ্গে দেখা করার পর তিনি সিদ্ধান্ত বদলে ফেলেছেন বলে সূত্রের দাবি। শোনা যাচ্ছে, দলের হাই কম্যান্ডের কাছে নিজের দাবি দাওয়া পেশ করেছেন সাংমা। রাহুল-সহ কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা তার অধিকাংশই মেনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেই দাবি সূত্রের।

Advertisement

তৃণমূলে (TMC) যোগদানের জল্পনার মধ্যেই শনিবার দিল্লি যান মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। দিল্লি যাত্রার আগে তৃণমূল যোগের জল্পনা ওড়াননি তিনি। সেসময় মুকুল বলেন,”কোনও জল্পনা আসল লোকটির মুখে না শোনা অবধি বিশ্বাস করতে নেই। এ বিষয়ে জানতে হলে অপেক্ষা করতে হবে।” তারপরই রবিবার রাহুল গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন কংগ্রেসের মেঘালয়ের প্রদেশ সভাপতি ভিনসেন্ট এইচ পালা (Vincent H Pala)। রাহুল গান্ধীই দু’পক্ষের মধ্যে সমঝোতা করিয়েছেন বলে কংগ্রেস সূত্রের দাবি। বৈঠক শেষে দু’জনকে একসঙ্গে নিয়ে ছবিও তোলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি।

[আরও পড়ুন: মৃত কৃষকদের পরিবার পিছু ৪৫ লক্ষ আর্থিক সাহায্য, যোগীর আশ্বাসে উঠল বিক্ষোভ]

বস্তুত, দিন কয়েক আগে থেকেই মুকুল সাংমার তৃণমূলে যোগদানের জল্পনা চলছিল। শোনা যাচ্ছিল, তাঁর সঙ্গে কংগ্রেস ছাড়তে পারেন আরও ১২ জন বিধায়ক। অর্থাৎ গোটা কংগ্রেস (Congress) পরিষদীয় দলটাই কার্যত তৃণমূলে যোগ দেওয়ার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। তৃণমূল সূত্রের খবর, সপ্তাহ দুয়েক আগেই কলকাতায় এসে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) সঙ্গে দেখা করে গিয়েছেন মুকুল। তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে তাঁর কথাবার্তা একপ্রকার পাকাও হয়ে যায়।

[আরও পড়ুন: ঝাঁট দিয়ে ঘর সাফ করছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী! লখিমপুর যাওয়ার পথে ‘বন্দি’ নেত্রীর ভিডিও প্রকাশ্যে]

কিন্তু তখনই হস্তক্ষেপ করা কংগ্রেস হাই কম্যান্ড। দিল্লিতে তলব করা হয় মুকুল এবং তাঁর বিরোধী ভিনসেন্ট এইচ পালাকে। আসলে, সদ্যই মুকুলকে উপেক্ষা করে সাংসদ ভিনসেন্ট এইচ পালাকে রাজ্য সভাপতি পদে নিয়োগ করেছে কংগ্রেসের (Congress) শীর্ষ নেতৃত্ব। আবার নতুন পদে বসেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠদের সরিয়ে নিজের ঘনিষ্ঠদের বিভিন্ন পদে বসান ভিনসেন্ট। সেটিই ছিল মুকুলের ক্ষোভের আসল কারণ। যা মিটে গিয়েছে বলে দাবি কংগ্রেস সূত্রের।

Advertisement
Next