Advertisement

নোট বাতিলের ডামাডোলের বাজারে ত্রাতা RBI-এর নির্দেশিকা

06:10 PM Nov 09, 2016 |

৫০০-১০০০ টাকার নোটের ঢের আগেই এ রাজ্যে রটে গিয়েছিল ১০ টাকার কয়েন বাতিল! গুজব বাতাসের চেয়েও দ্রুত ছড়ায়৷ এই ডামাডোলের বাজারে সতর্ক থাকতে RBI-এর নির্দেশিকা ঘেঁটে দেখলেন দীপেন্দু পাল

Advertisement

হোয়াইট হাউস দখলের দৌড়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প যতই বাজিমাত করুন না কেন, নরেন্দ্র মোদি বিলক্ষণ জানেন কী করে ফোকাস নিজের দিকে রাখতে হয়৷ প্রাক্তন সেনাকর্মীদের বকেয়া পেনশন, সংবাদমাধ্যমের উপর সেন্সর, কৃষক আত্মহত্যা-র মতো যাবতীয় বিতর্কিত বিষয় থেকে আমজনতার ফোকাস সরিয়ে দিতে তাঁর লাগল মাত্র একটি ঘোষণা৷ আজ, বুধবার থেকে দেশজুড়ে কয়েকটি নিত্য প্রয়োজনীয় পরিষেবা ছাড়া ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট অচল৷

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

এ পর্যন্ত সব ঠিক ছিল৷ কিন্তু গোল বাঁধল অন্যত্র৷ ওই যে কথায় বলে না, গুজব বাতাসের চেয়েও দ্রুত ছড়ায়৷ এখন সেই গুজবেই জেরবার কলকাতা-সহ এ রাজ্য৷ যার শুরুটা হয় ১০ টাকার কয়েন নিয়ে৷ আচমকাই বাজারে রটে গেল, ১০ টাকার কয়েন নাকি আর চলছে না৷ রাতারাতি মিষ্টির দোকান থেকে শুরু করে মিনি বাস, ১০ টাকার কয়েন দেখে কেউ আর নিতে চান না৷ সমস্যায় পড়লেন আমজনতা৷ যাঁদের ঘরে ১০ টাকার কয়েন মজুত ছিল, ভয়ে তাড়াতাড়ি খরচ করে ফেলার উদ্যোগ নিলেন৷ আরবিএই কিন্তু স্পষ্ট বলছে, ১০ টাকার কয়েন সম্পূর্ণ ভ্যালিড, কেউ নিতে না চাইলে তার বিরুদ্ধে আইনি পথে যাওয়ার রাস্তা খোলা রয়েছে৷

এবার আসা যাক একেবারে হালের ৫০০ ও ১০০০ টাকা বাতিলের প্রসঙ্গে৷ মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী ভাষণের পর থেকেই দেশজুড়ে ব্যাপক হইহই পড়ে গেল৷ মাঝরাতে ঘুম ভাঙিয়ে বিগ বাজার, স্পেনসার্স-রা জানিয়ে দিল, কোনও চিন্তা নেই, আপনি মধ্যরাত পর্যন্ত ৫০০-১০০০ টাকার নোট দিয়ে কেনাকাটা করতে পারবেন৷ সরকার স্পষ্ট করে বললেও পেট্রল পাম্প, দুধের দোকান, রেলের টিকিট কাটতে ৫০০ ও ১০০০ টাকা ব্যবহার করতে গিয়ে বেকায়দায় পড়েন বহু মানুষ৷ যার জেরে রাস্তা অবরোধ, স্টেশনে ভাঙচুর-কিছুই বাদ গেল না!

নোট বাতিলের প্রসঙ্গে কী বলছে আরবিআই? আসুন জেনে নেওয়া যাক রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশিকার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অংশে-

আরবিআই-এর বক্তব্য, কেন্দ্রের নয়া ঘোষণায় আখেরে সুবিধা হবে গরিব-মধ্যবিত্ত মানুষেরই৷ একজন সাধারণ মানুষ চট করে আসল-নকলের নোটের ফারাক বোঝেন না৷ নকল নোটগুলি সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করে অনুপ্রবেশকারীরা৷ আচমকাই, কাউকে আগাম কোনও আঁচ টের পেতে না দিয়ে কেন্দ্রের এরকম সাহসী সিদ্ধান্ত জঙ্গিবাদকে জোর ধাক্কা দিল৷ একদিকে, দেশে লিকুইড ক্যাশের স্রোতও বজায় রইল, অন্যদিকে জঙ্গি বা অসাধু ব্যবসায়ীদের কালো টাকা রাত পোহাতেই স্রেফ ছাপা কাগজে পরিণত হল৷

এখন একটা প্রশ্ন উঠছে, ধরা যাক কারও কাছে ১০ হাজার টাকা রয়েছে৷ ব্যাঙ্কে গেলে তিনি কি পুরো টাকাটাই ১০০ টাকার নোটে ভাঙাতে পারবেন? না! আরবিআই বলছে, আপাতত মাথাপিছু ৪০০০ টাকা করে নগদ মিলবে ব্যাঙ্ক থেকে, বাকি টাকা ওই ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে জমা পড়ে যাবে৷ এখন কারও যদি এককালীন ৪০০০ টাকার বেশি দরকার পড়ে? আরবিআই বলছে, সেক্ষেত্রে চেক ব্যবহার করাই বুদ্ধিমানের কাজ৷ নইলে ব্যবহার করুন ডিজিটাল ওয়ালেট৷ অনেকে জানতে চেয়েছেন, গরিব-মজদুর অনেকেরই তো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নেই৷ তাঁদের কী হবে? আরবিআই জানাচ্ছে, এমন ব্যক্তি দ্রুত ব্যাঙ্কে গিয়ে প্রয়োজনীয় নথি-সহ একটি জিরো ব্যালান্স অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন৷ যাঁদের জন-ধন প্রকল্পের অ্যাকাউন্ট রয়েছে, তাঁরাও সাধারণ ব্যাঙ্কের মতোই পরিষেবা পাবেন এক্ষেত্রে৷

অনেকেই জানতে চেয়েছে, শুধুমাত্র নিজের ব্যাঙ্ক থেকেই কি এই সুবিধা মিলবে? রিজার্ভ ব্যাঙ্ক বলছে, সচিত্র পরিচয়পত্র-সহ যে কোনও ব্যাঙ্কের শাখায় গেলেই ৪০০০ টাকা নগদ মিলবে৷ কিন্তু তার বেশি টাকার দরকার পড়লে যেখানে আপনার অ্যাকাউন্ট রয়েছে, সেই শাখাতেই যান৷ অন্য শাখাতেও যেতে পারেন, তবে সেক্ষেত্রে বৈধ পরিচয়পত্র ও অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত তথ্য সঙ্গে অবশ্যই নিয়ে যাবেন৷ আরবিআই আরেকটি কথাও বলছে, নিজে না গিয়ে অন্য কোনও পরিচিত আত্মীয় বা বন্ধুকেও আপনি টাকা তুলে আনতে ব্যাঙ্কে পাঠাতে পারেন৷ কিন্তু সেক্ষেত্রে টাকা তোলার জন্য আপনার সম্মতিপত্র প্রয়োজন৷ রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার ১৯টি দফতর, যে কোনও ব্যাঙ্কের শাখা, হেড পোস্টঅফিস বা সব পোস্টঅফিস থেকে আপনার সমস্ত ৫০০-১০০০ টাকার নোট ভাঙিয়ে নিতে পারবেন ১০০ টাকার নোটে৷

এবার আসা যাক, এটিএম-এর প্রসঙ্গে৷ রিজার্ভ ব্যাঙ্ক স্পষ্ট জানাচ্ছে, ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন ২০০০ টাকা ও ১৯ নভেম্বরের পর থেকে প্রতিদিন ৪০০০ টাকা করে তোলা যাবে এটিএম থেকে৷ চেকের বিনিময়ে একদিনে পাওয়া যাবে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত, সপ্তাহে মিলবে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত৷  প্রশ্ন উঠতেই পারে, সচিত্র পরিচয়পত্র হিসাবে কী ব্যবহার করা যাবে? রিজার্ভ ব্যাঙ্কের উত্তর, আধার কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ভোটার আইডি কার্ড, পাসপোর্ট, প্যান কার্ড ব্যবহার করা যাবে৷ বাকি সমস্ত তথ্যের জন্য www.rbi.org.in-এ ভিজিট করুন৷

ওহ, আরেকটি শেষ তথ্য আপনাদের জানিয়ে রাখি৷ ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপে যদি দেখেন যে নয়া ২০০০ টাকার নোটে জিপিএস ট্র্যাকিং চিপ থাকছে, তাহলে বিশ্বাস করবেন না যেন! সেটিও আসলে গুজব!

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

The post নোট বাতিলের ডামাডোলের বাজারে ত্রাতা RBI-এর নির্দেশিকা appeared first on Sangbad Pratidin.

Advertisement
Next