‘AIADMK’র সঙ্গে জোট অটুট! বিতর্কের মাঝেই দাবি তামিলনাডুর বিজেপি সভাপতির

03:04 PM Dec 29, 2020 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শিরোমণি অকালি দলের পর শনিবার এনডিএ (NDA) ছেড়েছিল রাজস্থানের রাষ্ট্রীয় লোকতান্ত্রিক পার্টি। একে একে সব দলই বিজেপিকে (BJP) ছেড়ে যাবে বলে কটাক্ষ করছিল বিরোধীরা। এই পরিস্থিতিতে নতুন জল্পনা শুরু হয় AIADMK’‌র সাংসদ কেপি মুনুস্বামী নাম না করেই বিজেপিকে প্রচ্ছন্ন হুঁশিয়ারি দেওয়ায়। আবারও আরেক জোটসঙ্গী গেরুয়া শিবিরের সঙ্গ ছাড়তে পারে, এমন জল্পনা শুরু হয়েছিল। কিন্তু এমন কোনও সম্ভাবনা নেই বলেই এবার দাবি করলেন বিজেপি নেতা এল মুরুগান (L Murugan)।

Advertisement

তামিলনাডুর বিজেপি সভাপতি মুরুগান সোমবার জানিয়ে দেন, AIADMK’‌র সঙ্গে তাঁদের দলের জোট অটুট রয়েছে। এবং তা ভাঙার কোনও সম্ভাবনা নেই। পরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কে পালানিস্বামীও (K Palaniswami) একই মন্তব্য করেন। জানা গিয়েছে, গতকালই দুই নেতার মধ্যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। মনে করা হচ্ছে, সেই আলোচনাতেই জট কেটেছে।

[আরও পড়ুন: জিও’র প্রতি ক্ষোভ! পাঞ্জাবে দেড় হাজার মোবাইল টাওয়ারে ভাঙচুর বিক্ষোভরত কৃষকদের]

কী নিয়ে আচমকাই ফাটল দুই দলের সম্পর্কে? আসলে এপ্রিল-মে মাসে পশ্চিমবঙ্গের মতো তামিলনাড়ুতেও বিধানসভা নির্বাচন। ভোটে এনডিএ জিতে গেলে মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন, বিতর্কের সূত্রপাত সেখান থেকেই। প্রথম থেকেই পালানিস্বামীকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা করেছে এআইএডিএমকে। কিন্তু বিজেপিও ধারে-ভারে বুঝিয়েছে, এখনই তারা এ ব্যাপারে জোটসঙ্গীদের সবুজ সংকেত দেবে না। এমনকী কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকরকে এই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে, তা এড়িয়ে যান তিনি। এরপরই রবিবার সাংসদ কেপি মুনুস্বামী স্পষ্ট জানান, ‘‌‘কোনও জাতীয় দল যদি স্বৈরাচারী মনোভাব দেখায়, তাহলে তাদের জোটে না থাকাই উচিত।’‌’

Advertising
Advertising

এমনিতেও এরাজ্যে একজনও বিধায়ক বা সাংসদ নেই বিজেপির। ফলে তাদের সঙ্গে কোনওরকম সমঝোতাতেই যে যেতে রাজি নয় AIADMK, তা স্পষ্ট। অবশেষে আলোচনার মাধ্যমেই জট খোলার পরিস্থিতি তৈরি হয়ে গিয়েছে। এদিনের বৈঠকের পর পালানিস্বামীর বক্তব্য থেকে পরিষ্কার, তাঁর মুখ্যমন্ত্রিত্বের দাবিদার থাকার বিষয়ে আর আপত্তি নেই বিজেপির। এদিন মুরুগান জানিয়ে দিয়েছেন, প্রয়াত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার দলের সঙ্গে তাঁদের জোট থাকছে। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, সকলের সমস্ত প্রশ্নের উত্তর আগামী দু’-তিন দিনের মধ্যেই মিলবে।

[আরও পড়ুন: আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কেন্দ্রের বৈঠকের দিন বদল, বছর শেষে কি মিটবে কৃষক বিক্ষোভ?]

Advertisement
Next