Advertisement

রাতভর জঙ্গিবিরোধী অভিযান কাশ্মীর উপত্যকায়, সেনার গুলিতে নিকেশ ৩ লস্কর সদস্য

09:21 AM Oct 12, 2021 |

মাসুদ আহমেদ, শ্রীনগর: সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াই থামছেই না কাশ্মীর উপত্যকায়। সোমবারই জঙ্গি হামলায় জম্মু-কাশ্মীরের (Jammu and Kashmir) পুঞ্চ সেক্টরে শহিদ হয়েছিলেন এক সেনা অফিসার-সহ মোট ৫ জওয়ান। তারপর থেকে লাগাতার উপত্যকার বিভিন্ন অংশে জঙ্গিবিরোধী অভিযান আরও জোরদার হয়েছে। তার সুফলও মিলল হাতেনাতে। সোমবার রাতভর যৌথবাহিনীর অপারেশনে ৩ লস্কর (LeT)জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়েছে। নিহতদের মধ্যে রেসিস্ট্যান্স ফ্রন্টের সদস্যও রয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে জম্মু-কাশ্মীরের পুলিশ। উদ্ধার হয়েছে প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র।

Advertisement

সোমবার থেকে সোপিয়ানের (Shopian) তুলরান, ইমামসাহিব এলাকায় সেনা-জঙ্গির সংঘর্ষ শুরু হয়। এসব এলাকাতেই জঙ্গিরা গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে বলে গোপন সূত্রে কবর ছিল পুলিশের কাছে। সেইমতো ঘাঁটিগুলিতে হানা দিয়ে তিন জঙ্গিকে খতম করা হয়। পুলিশ সূত্রে খবরহ, এরা লস্কর-ই-তইবা এবং দ্য রেসিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (TRF) সদস্য। কাশ্মীরের আইজি বিজয় কুমার জানিয়েছেন, এরা সকলে গান্ডেরওয়াল থেকে সোপিয়ানে এসে লুকিয়েছিল। তিনি বলেন, ”নিহতদের মধ্যে একজনকে আমরা শনাক্ত করতে পেরেছি। তার নাম মুক্তার শাহ। গান্ডেরওয়ালে এক হকারকে নৃশংসভাবে খুনের অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে। তারপর থেকেই পুলিশের নজরে ছিল। সোপিয়ানে পালিয়ে আত্মগোপন করতে চেয়েছিল। সোমবারের অপারেশনে নিকেশ হয়েছে।”

[আরও পড়ুন: পদবি খান বলেই টার্গেট শাহরুখপুত্র আরিয়ান! বিস্ফোরক মেহবুবা মুফতি]

দেশজুড়ে উৎসবের মরশুমের মাঝে সীমান্তকে সুরক্ষিত রাখতে বাড়তি সতর্কতা নিয়েছে সেনাবাহিনী। তারই মাঝে অশান্তির আঁচ এতটুকুও কমছে না কাশ্মীর সীমান্তে। সোমবার পুঞ্চে সেনাবাহিনীর টহলদারির সময়ে জঙ্গি হামলায় (Terror attack) ৫ জওয়ান শহিদ হওয়ার পর পালটা প্রত্যাঘাতও চলে জঙ্গিবাহিনীর উপর। সোমবারের অপারেশনে শামিল ছিল ৩৪ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস (RR)এবং সিআরপিএফ আধিকারিক, জওয়ানরা। তুলরানের অপারেশনে তাঁদের হাত ধরেই জঙ্গি নিধন হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘অশিক্ষিত নাগরিক দেশের জন্য বোঝা’, মন্তব্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর]

সম্প্রতি স্কুলে জঙ্গিহানার পর থেকেই অশান্ত কাশ্মীর। টার্গেট কিলিংয়ের জেরে কার্যত দলে দলে সংখ্যালঘুরা উপত্যকা ছেড়ে চলে যাচ্ছেন বলেই খবর। সংবাদপত্রে প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে, আতঙ্কের রেশ প্রবল। কাশ্মীরে শিক্ষক-মৃত্যুর ঘটনায় ১৬টি জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালিয়েছে এনআইএ। পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে নিরাপত্তাবাহিনীও পাকড়াও করেছে বেশ কয়েকজনকে। জানা গিয়েছে, প্রায় ৯০০ জনকে আটক করেছে তারা।

Advertisement
Next