উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন: ভোটদানে বিরত থাকার নির্দেশ তৃণমূলের, শিশির-দিব্যেন্দুকে চিঠি সুদীপের

09:38 PM Aug 05, 2022 |
Advertisement

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত, নয়াদিল্লি: শেষ পর্যন্ত উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে  মত বদল করল না বাংলার শাসকদল তৃণমূল (TMC)। শনিবার এই ভোটে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্তে অনড় থেকে দলীয় সাংসদদের নির্দেশ দিলেন লোকসভায় সংসদীয় দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় (Sudip Banerjee)।  ভোট না দেওয়ার কথা জানিয়ে দুই সাংসদ – শিশির অধিকারী ও দিব্যেন্দু অধিকারীর কাছে পাঠানো হল বিশেষ বার্তা। শিশির অধিকারীর বিরুদ্ধে এই মুহূর্তে দলবদল মামলা চলছে। আর দিব্যেন্দু অধিকারী গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানোয় তাঁকে নিয়েও সাবধানী তৃণমূল। 

Advertisement

শনিবার উপরাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচন (Vice President Election) । সংখ্যাতত্ত্বের বিসাবে নির্বাচনে গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী ও বাংলার প্রাক্তন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের জয় কার্যত নিশ্চিত। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। কিন্তু হাল ছাড়াতে নারাজ বিরোধীদের প্রার্থী মার্গারেট আলভা। নির্বাচনের আগের দিন সাংসদদের কাছে ‘বিবেক’ ভোটের আবেদন জানান তিনি। আবেদনে জানান, উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন হবে গোপন ব্যালটে। বিবেকের ডাকে সাড়া দিয়ে সাংসদরা ভোট দিন।

[আরও পড়ুন: প্রায় ১ লক্ষ ৯৬৮ কোটি টাকা বকেয়া রাজ্যের, মোদির সঙ্গে বৈঠকে প্রাপ্য হিসেব বুঝিয়ে দিলেন মমতা]

তবে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে তৃণমূল অগ্রণী ভুমিকা নিলেও উপরাষ্টপতি নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তৃণমূল। সদ্যসমাপ্ত রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিপুল সংখ্যক বিধায়ক ও সাংসদের সমর্থন নিয়ে রাইসিনার দখল নেন দেশের প্রথম আদিবাসী মহিলা দ্রৌপদী মুর্মু (Draupadi Murmu)। এবার উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচন। এই নির্বাচনে ভোট দেবেন সংসদের দুই কক্ষের সাংসদরা। গেরুয়া শিবিরের প্রার্থী জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)। তাঁর মূল প্রতিদ্বন্দ্বী প্রবীণ কংগ্রেস নেত্রী মার্গারেট আলভা। অঙ্কের হিসেবে মার্গারেট আলভার থেকে অনেকটাই এগিয়ে ধনকড়। তার উপর তৃণমূল এই নির্বাচনে ভোটদানে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বঙ্গের শাসকদলের তরফে জানান হয়, যেভাবে বিরোধীরা তাঁদের শীর্ষনেতৃত্বের সঙ্গে বিনা আলোচনাতেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা আপত্তিজনক। তাই ভোটদানে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত বলে তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ‘উনি তো পর্যটক’, সিপিএমের পুরস্কার গ্রহণ করতেই অমর্ত্য সেনকে কটাক্ষ বাবুল সুপ্রিয়র]

এই মর্মে দলের প্রত্যেক সাংসদকে চিঠি দিয়েছেন লোকসভায় তৃণমূলের দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। বিশেষ বার্তা পৌঁছেছে অধিকারী পরিবারের কাছে। শুভেন্দু অধিকারীর বাবা সাংসদ শিশির অধিকারীও গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছেন বলে অভিযোগ। তিনি এখন কোন শিবিরে, তা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। এর মধ্যে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটদানে বিরত থাকতে নির্দেশ দিয়ে দিব্যেন্দু অধিকারীকে চিঠি দিয়েছেন। এ নিয়ে দিব্যেন্দুবাবু জানিয়েছেন, ”আমি কলকাতায় আছি। চিঠি পেয়েছি। ভোট দেব কি না, এখনও ঠিক করিনি।”

Advertisement
Next