Advertisement

হিন্দুদের অস্তিত্ব রক্ষায় দু-তিন সন্তানের জন্ম দিন, যুব সম্মেলনে বার্তা ভিএইচপি নেতার

01:17 PM Jan 14, 2022 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হরিদ্বার ও রায়পুরের ধর্ম সংসদে (Dharma Sangsad) মুসলিম নিধনের বার্তা দেওয়া নিয়ে এখনও উত্তেজনা অব্যাহত। ওই দুই ধর্ম সংসদে হিংসায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তারিও শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে এবার বিয়ের পর হিন্দু যুবকদের কম করে দুই থেকে তিনটি সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরামর্শ দিলেন এক বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (VHP) নেতা। ভিএইচপি নেতা মিলিন্দ পারান্ডের (Milind Parande) মতে, হিন্দুরা দুই থেকে তিনটি সন্তানের জন্ম না দিলে ভবিষ্যতে অস্তিত্বের সংকটে পড়ে যাবে হিন্দু সমাজ।

Advertisement

সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের (Madhyapradesh) খাণ্ডওয়াতে একটি যুব সম্মেলনের আয়োজন করে ভিএইচপি ও বজরং দল(Bajrang Dal)। সেখানেই উপস্থিত যুবকদের উদ্দেশে মিলিন্দ পারান্ডে বলেন, “বিয়ের পর প্রত্যেক হিন্দু যুবকের সন্তান জন্ম নিয়ে ভাবা উচিত। প্রত্যেকের কম করে দুই থেকে তিনটি সন্তানের পিতা হওয়া উচিত। হিন্দু সমাজ সংকটে পড়বে যদি হিন্দু জনসংখ্যা কমে যায়।”

[আরও পড়ুন: ধর্ম সংসদে হিংসার উসকানি! আটক মুসলিম থেকে হিন্দু হওয়া জিতেন্দ্র ত্যাগী]

এদিনের সভায় ইংরেজি ধারার আধুনিক শিক্ষার বিরুদ্ধেও তোপ দাগেন ভিএইচপি নেতা। তাঁর মতে, ব্রিটিশ শাসনকালে ভারতের অতীত গৌরবকে মুছে ফেলার চেষ্টা হয়েছে। তারা এমন শিক্ষা পদ্ধতি প্রণয়ন করেছিল যাতে করে নিজেদের অতীত ইতিহাস সম্পর্কে আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলে হিন্দু সমাজ। মিলিন্দ বলেন, “তারা আমাদের শিক্ষাব্যবস্থাকে কলুষিত করেছে… যে সমাজ তার পূর্বপুরুষদের জন্য লজ্জিত বোধ করে সেই সমাজ বেশিদিন টিকে থাকতে পারে না।”

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: অস্তিত্বরক্ষায় হাতে অস্ত্র তুলে নিক হিন্দুরা, হরিদ্বারে ‘ধর্ম সংসদে’ গণহত্যার উসকানি]

মিলিন্দ আরও বলেন, যখন মুসলিমদের সংখ্যা বাড়ছে, তখন হিন্দুদের সংখ্যা কমে যাচ্ছে। যা বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে হিন্দুদের জন্য। হিন্দুদের অন্য ধর্মে ধর্মান্তরিত করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন ভিএইচপি নেতা। নেতার বক্তব্য, “হিন্দু জনসংখ্যা কমলে দেশের অখণ্ডতা বিপন্ন হতে পারে। অতীতেও এমনটা দেখা গিয়েছে। দেশ যাতে আবার ভাগ না হয় সেজন্য হিন্দুদের সংখ্যা বাড়ানো উচিত। “

প্রসঙ্গত, হরিদ্বারের ধর্ম সংসদে মুসলিমদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার ডাক দিয়েছিলেন যতি নরসিংহানন্দ। ওই ঘটনায় স্বামী ধর্মদাস, সাধ্বী অন্নপূর্ণা এবং সম্প্রতি ওয়াসিম রিজভি থেকে ধর্মান্তরিত জিতেন্দ্র নারায়ণ সিং ত্যাগীর বিরুদ্ধেও এফআইআর দায়ের হয়েছিল। গতকাল ওয়াসিম রিজভি জিতেন্দ্র ত্যাগীকে (Wasim Rizvi Alias Jitendra Tyagi) গ্রেপ্তার করেছে উত্তরাখণ্ড পুলিশ।

Advertisement
Next