ভিডিও মুছেও মিলল না রেহাই, নুপূর শর্মার মুণ্ডচ্ছেদের গ্রাফিক্স বানিয়ে গ্রেপ্তার কাশ্মীরের ইউটিউবার

03:57 PM Jun 11, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হজরত মহম্মদকে নিয়ে নূপুর শর্মার মন্তব্যকে (Prophet Comments Row) কেন্দ্র করে বিতর্ক দেশজুড়ে। এই পরিস্থিতিতে কাশ্মীরের (Kashmir) ইউটিউবার ফয়জল ওয়ানির একটি ভিডিও ঘিরে চাঞ্চল্য তৈরি হল। অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন ফয়জল।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

শনিবারই নিজের ইউটিউব চ্যানেল ‘ডিপ পেইন ফিটনেসে’ ভিডিওটির জন্য ক্ষমা চেয়ে সেটি মুছে দিয়েছিলেন ওই ইউটিউবার। কী ছিল সেই ভিডিওয়? ফয়জল একটি গ্রাফিক্স তৈরি করেছিলেন। তাতে দেখানো হয়েছিল, তরোয়াল দিয়ে মুণ্ডচ্ছেদ করা হচ্ছে নুপূরের। এরপরই সেই ভিডিওটিকে কেন্দ্র করে নতুন মাত্রা পায় বিতর্ক।

[আরও পড়ুন: এসব বরদাস্ত করা হবে না, কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে, হাওড়ার হিংসা রুখতে কড়া বার্তা মমতার

শেষে শনিবার ভিডিওটি মুছে দেন ফয়জল। সেই সঙ্গে তিনি জানান, ”হ্য়াঁ, আমি ভিডিওটি বানিয়েছিলাম। কিন্তু কোনও খারাপ উদ্দেশ্য আমার ছিল না। আমি ভিডিওটি মুছে দিচ্ছি। কাউকে কোনও ভাবে আঘাত দিয়ে থাকলে সেজন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আপনার চাইলে আমার ব্যাকগ্রাউন্ড ও অন্যান্য বিষয় খতিয়ে দেখে নিতে পারেন। আমি একজন মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ।”

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

হজরত মহম্মদকে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন নূপুর শর্মা। যার প্রতিবাদে রাজধানী দিল্লি থেকে উত্তরপ্রদেশ, বাংলা থেকে ঝাড়খণ্ড-সহ বিভিন্ন রাজ্যে প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন আন্দোলনকারীরা। বিজেপি নুপূরকে এবং তাঁকে সমর্থন করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা আরেক বিজেপি নেতা নবীন জিন্দালকেও দল থেকে বহিষ্কার করেছে। এরপরও পরিস্থিতি উত্তপ্ত রয়েছে। এই অবস্থায় ফয়জলের ভিডিও নিয়ে বিতর্ক অন্য মাত্রা পায়। অবশেষে গ্রেপ্তার সেই বিতর্কিত পোস্ট।

[আরও পড়ুন: ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় সোনিয়াকে ফের তলব ইডির, ২৩ জুন হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ]

উল্লেখ্য, বরখাস্ত বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ (Delhi Police)। ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার অভিযোগ নিয়েই মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই সঙ্গে নবীন জিন্দল, সাংবাদিক সাবা নকভি-সহ আরও বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধেও আলাদা করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে এঁদের বিরুদ্ধে।

Advertisement
Next