Advertisement

‘বাংলায় বিনিয়োগে Tata-কে স্বাগত’, বলছেন শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

08:59 PM Jul 19, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেটে গিয়েছে ১৩ বছর। সিঙ্গুর আন্দোলনের পর রাজ্য ছেড়ে গিয়েছে টাটা গোষ্ঠীর (Tata Group) ন্যানো কারখানা। সেই আন্দোলনের হাত ধরেই রাজ্য রাজনীতির পট পরিবর্তন হয়েছে। এবার সেই শিল্পগোষ্ঠীকেই রাজ্যে বিনিয়োগের জন্য আমন্ত্রণ জানালেন শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Industry Minister Partha Chatterjee)। তাঁর সাফ কথা, “টাটা গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে কোনও লড়াই ছিল না। বাংলায় তাঁদের স্বাগত।”

Advertisement

সিঙ্গুরে ন্যানো গাড়ির কারখানা গড়তে চেয়েছিল রতন টাটার শিল্পগোষ্ঠী। তৎকালীন বাম সরকারের জমি অধিগ্রহণ নীতির বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিল এলাকার মানুষজন। জমি বাঁচানোর আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বিরোধীনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আন্দোলনের জেরে শেষপর্যন্ত বাংলা ছেড়ে গুজরাটে সানন্দে কারখানা তৈরি করেছিল টাটারা। এর পর পেরিয়ে গিয়েছে ১৩ বছর। বিরোধী নেত্রীর কুর্সি ছেড়ে মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের উন্নয়ন হলেও বাংলায় শিল্প বিনিয়োগ নিয়ে বরাবরই মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধেছেন বিরোধীরা। সেই বদনাম ঘোচাতে রাজ্যে বিনিয়োগে জোর দিয়েছে তৃণমূল সরকার। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে শিল্প তৈরি হচ্ছে বলে দাবি করেছে রাজ্যের সরকার। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যের শিল্পমন্ত্রীর টাটাকে স্বাগত জানানোর মন্তব্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। কী বলেছেন পার্থবাবু?

[আরও পড়ুন: Pegasus: আড়ি পাতা হয়েছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রশান্ত কিশোরের ফোনেও, দাবি রিপোর্টে]

সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “টাটাগোষ্ঠীর সঙ্গে আমাদের কোনও শত্রুতা ছিল না। আমরা ওঁদের বিরুদ্ধে কোনওদিন লড়াই করিনি। ওঁরা গোটা বিশ্ব তথা ভারতের তাবড় তাবড় শিল্পগোষ্ঠীদের মধ্যে অন্যতম। ওদের তো দোষ দেওয়া যায় না।” তিনি আরও বলেন, “আমাদের সমস্যা ছিল বামেদের জোর করে জমি অধিগ্রহণ নীতি নিয়ে। রাজ্যে বিনিয়োগের জন্য টাটাগোষ্ঠীকে সবসময় স্বাগত জানাই।” শিল্পমন্ত্রীর এহেন মন্তব্য যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

 

 

[আরও পড়ুন: ১৪ মাসে LPG’র দাম বেড়েছে ৪৭ শতাংশ, জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ অমিত মিত্রের]

Advertisement
Next