Advertisement

Mohun Bagan Day: মরণোত্তর ‘মোহনবাগান রত্ন’শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায়কে, সেরা ফুটবলার রয় কৃষ্ণ

08:25 PM Jul 29, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তাঁকে বলা হতো, ‘পেনাল্টি বাঁচানোর রাজা’। সেই শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায়কে এ বছর মরণোত্তর ‘মোহনবাগান রত্ন’ (Mohunbagan Ratna) সম্মানে ভূষিত করা হল। যদিও মোহনবাগান ক্লাব কর্তারা তাঁকে কেবলমাত্র ‘পেনাল্টি বাঁচানোর রাজা’ বলতে একেবারেই আগ্রহী নন। শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায় (Shibaji Banerjee) তাঁর সময়ের অন্যতম সেরা গোলকিপার ছিলেন বলেই মনে করেন মোহনবাগান-কর্তারা। আজ, বৃহস্পতিবার ভারচুয়ালি অনুষ্ঠানে সেই কথাই বারবার উচ্চারিত হল। সত্তর দশকের শেষের দিকে এবং আশির দশকের প্রথমার্ধে সবুজ-মেরুন দুর্গ আগলাতেন শিবাজি। আজ, ২৯ জুলাই ‘মোহনবাগান রত্ন’ তুলে দেওয়া হল শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী মালা দেবীর হাতে। 

Advertisement

করোনা আবহে সভ্য-সমর্থক, এমনকী সংবাদ মধ্যমেরও প্রবেশ নিষিদ্ধ ছিল ক্লাবতাঁবুতে। মোহনবাগান দিবস (Mohun Bagan Day) ঘিরে যা হবে, তার পুরোটাই হবে ভারচুয়ালি। এমনটা আগেই জানানো হয়েছিল। সেই মতোই এদিন অনুষ্ঠান হল। স্মরণে, বরণে শ্রদ্ধা জানানো হল প্রাক্তন গোলকিপারকে। স্মৃতিচারণে উঠে এলেন অন্য এক শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায়। ফুটবলের পাশাপাশি ভাল ক্রিকেটও খেলতেন তিনি। পরের দিকে ক্রিকেটের প্রতি সেভাবে নজর না দিয়ে ফুটবলই বেছে নেন। তাঁর স্ত্রী মালা দেবী জানান, ভাল অ্যাথলিট ছিলেন শিবাজি। ক্রিকেট, অ্যাথলেটিক্স এবং ফুটবলে যাঁর অনায়াস দক্ষতা ছিল, সেই শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায় ফুটবল সম্রাট পেলের পা থেকে বল তুলে নিয়েছিলেন কসমস ক্লাবের বিরুদ্ধে ম্যাচে। বর্ষাস্নাত, পিচ্ছিল ইডেন গার্ডেন্সে মোহনবাগানের (Mohun Bagan) গোল আগলানোর দায়িত্বে ছিলেন শিবাজি। পেলের পা থেকে ওভাবে বল ছিনিয়ে নেওয়ার পরে ফুটবল সম্রাট তাঁকে বলেছিলেন, “আর ইউ ক্রেজি? চোট লেগে যেতে পারত তোমার।” চোটের ভয় দূরে সরিয়ে রেখে সেদিন বিখ্যাত ব্রাজিলীয়র পা থেকে বল ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন ময়দানের ‘শিবাজিদা’। 

[আরও পড়ুন: Tokyo Olympics: হকিতে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ভারত, ব্যাডমিন্টনে বাজিমাত সিন্ধুর]

২০১৪-১৫ মরসুমে মোহনবাগানকে আই লিগ এনে দেন সনি নর্দে, বেলো রজ্জাকরা। সেবার সত্যজিৎ চট্টোপাধ্যায়, কম্পটন দত্ত এবং শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন টেকনিক্যাল কমিটিতে। সেই প্রসঙ্গ উত্থাপ্পন করে ক্লাব সচিব সৃঞ্জয় বসু বলেন, “শিবাজিদা অন্যতম সেরা গোলকিপার ছিলেন আমরা জানি। কিন্তু উনি মানুষ হিসেবে বড় মাপের ছিলেন।” শিবাজি বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুত্র শান্তনু বলেন, “বাবা, আজ জীবিত থাকলে এই সম্মান নিতেন কিনা জানি না। কারণ তিনি নিজেকে কিংবদন্তি কখনওই বলতেন না। তাঁর চোখে কিংবদন্তির সংজ্ঞা অন্য। মোহনবাগান ক্লাব বাবার কাছে পরিবার-সম ছিল। সেই পরিবারের কাছ থেকে এরকম স্বীকৃতি পেতে তো ভালই লাগে।” 

১৯১১ সালে আজকের এই দিনে, ইস্ট ইয়র্কশায়ার রেজিমেন্ট দলকে ১-২ গোলে হারিয়ে প্রথমবার আইএফএ শিল্ড জেতে মোহনবাগান। ঐতিহাসিক শিল্ড জয়ী দলের জার্সির রেপ্লিকা এদিন উন্মোচিত হল।এটাই ছিল এবারের মোহনবাগান দিবসের বড় চমক। সেদিনের সেই জার্সির রং, ডিজাইন ঠিক করতে অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে বলে জানান কর্তারা। গোষ্ঠ পালের জন্মদিন ২০ আগস্ট থেকে তা পাবেন মোহনবাগান সমর্থকরা।

গত মরশুমে আইএসএলে দুরন্ত পারফরম্যান্সের জন্য সেরা ফুটবলার হন রয় কৃষ্ণ। এদিকে, এদিনই আবার এটিকে মোহনবাগানের সঙ্গে রয় কৃষ্ণর নয়া চুক্তির কথা ঘোষণা করা হল। এছাড়া ঘরোয়া ক্রিকেটে ক্লাবের হয়ে দারুণ পারফরম্যান্স দেওয়ার জন্য সেরা ক্রিকেটার হিসেবে নির্বাচিত হন অভিমন্যু ঈশ্বরণ। সেরা অ্যাথলিটের পুরস্কার তুলে দেওয়া হয় বিদিশা কুণ্ডুর হাতে।রাতে বাংলা ব্যান্ড ক্যাকটাসের গান শোনা যাবে মোহনবাগানের ফেসবুক পেজ থেকে। করোনা অতিমারী থাবা বসিয়েছে সর্বত্র। ক্লাব কর্তাদের আশা, করোনার প্রকোপ কেটে গেলে পরের বছর আবার আগের মতোই হবে মোহনবাগান দিবসের অনুষ্ঠান। 

দেখুন ভিডিও:

[আরও পড়ুন: Tokyo Olympics: বক্সিংয়ে জোড়া পদকের আশা ভারতের, তিরন্দাজিতে জিতলেন দীপিকাও]

Advertisement
Next