Advertisement

সাফ কাপে ১০ জনের বাংলাদেশের কাছে আটকে গেল ইগর স্টিমাচের ভারত

06:36 PM Oct 04, 2021 |

ভারত: ১ (সুনীল ছেত্রী)
বাংলাদেশ: ১ (ইয়াসিন আরাফাত)

Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাফ কাপের (SAFF Cup) প্রথম ম্যাচে দশজনের বাংলাদেশের কাছে আটকে গেল ভারত। ম্যাচ শেষ হল ১-১ গোলে। ভারতের হয়ে গোল করলেন সেই সুনীল ছেত্রী। বাংলাদেশের হয়ে গোল করলেন ইয়াসিন আরাফাত। প্রায় ৪০ মিনিট দশজনে খেলেও বাংলাদেশ যেভাবে ভারতকে আটকে দিল, তা চিন্তায় রাখবে ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্টিমাচকে (Igar Stimach)।

পরিসংখ্যান বলছে, সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে এ পর্যন্ত ভারত ও বাংলাদেশ মুখোমুখি হয়েছে ন’বার। যার মধ্যে ভারত এগিয়ে রয়েছে ৪-১ ফলে। শেষবার ২০০৩ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ১-২ হেরে গিয়েছিল ভারত (Indian Cricket Team)। কিন্তু তার পরে গত ১৮ বছরে ভারতের বিরুদ্ধে এই প্রতিযোগিতায় জেতেনি বাংলাদেশ। এ হেন প্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে এভাবে আটকে যাওয়া আরও একবার প্রশ্ন তুলে দিল কোচ স্টিমাচের ভবিষ্যৎ নিয়ে।

[আরও পড়ুন: আইপিএলে অভিষেকেই চমকে দিলেন জম্মু-কাশ্মীরের পেসার উমরান মালিক, গড়লেন অনন্য রেকর্ডও]

সোমবার ম্যাচের শুরুটা খারাপ করেনি ভারত। প্রথমার্ধে বাংলাদেশের থেকে অনেকটাই ভাল ফুটবল খেলেন সুনীল ছেত্রীরা (Sunil Chhetri)। ভাল পাসিং, ভাল ছন্দ এবং ম্যাচের গতিপ্রকৃতি সবটাই ভারতের নিয়ন্ত্রণে ছিল। আক্রমণাত্মক শুরু করার সুফলও পায় ভারতীয় দল। ম্যাচের ২৬ মিনিটে দুর্দান্ত গোল করে ভারতকে এগিয়েও দেন অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী। প্রথমার্ধের শেষ পর্যন্ত মোটামুটি খেলার নিয়ন্ত্রণ ভারতের হাতেই ছিল।

[আরও পড়ুন: অতিরিক্ত সময়ে এডু বেদিয়ার গোল, মহামেডানকে হারিয়ে ডুরান্ড চ্যাম্পিয়ন এফসি গোয়া]

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুটাও মন্দ করেনি ভারত। শুরু থেকেই আক্রমণ শানানোর চেষ্টা করছিলেন সুনীলরা। ম্যাচের ৫৪ মিনিটে প্রায় ফাঁকা গোলে এগিয়ে যাচ্ছিলেন ভারতের লিস্টেন কোলাসো। ঠিক তখনই তাঁকে পিছন থেকে ফাউল করে বসেন বাংলাদেশের বিশ্বনাথ। তাঁকে লালকার্ড দেখান রেফারি। ১০ জনে নেমে যায় বাংলাদেশ। কিন্তু ১০ জোনে নেমে যাওয়ার পর বাংলার টাইগাররা যেন ক্ষুধার্ত বাঘের মতো ঝাঁপিয়ে পড়ে ভারতের উপর। তুলনায় ভারত যেন গতি হারিয়ে ফেলে। ফলে একের পর এক সুযোগ তৈরি করতে থাকেন বাংলাদেশের ফুটবলাররা। ম্যাচের ৭৪ মিনিটে বাংলাদেশের ইয়াসিন আরাফাত দুর্দান্ত গোল করে সমতা ফেরান। এরপর একাধিক আক্রমণ করেও বাংলাদেশের গোলমুখ খুলতে পারেননি সুনীলরা। ম্যাচ শেষ হয় অমীমাংসিতভাবেই।

Advertisement
Next