Advertisement

Taliban Terror: প্রাণ যায় যাক, পূর্বপুরুষের মন্দির ছাড়বেন না কাবুলের শেষ হিন্দু পুরোহিত

05:40 PM Aug 17, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ুক, মন্দির ছেড়ে যাবেন না পণ্ডিত রাজেশ কুমার। রাজেশের পরিচয়, তিনিই সম্ভবত আফগান (Afghanistan) রাজধানী কাবুলের (Kabul) সর্বশেষ হিন্দু পুরোহিত (Hindu priest)। কাবুলের রতননাথ মন্দিরই তাঁর কাজ এবং প্রার্থনাস্থল। কিন্তু তাঁর এহেন ধনুকভাঙা পণের কারণ কী?

Advertisement

রাজেশের কথায়, “আমার পূর্বপুরুষরা শয়ে শয়ে বছর ধরে এই মন্দিরে পূজার্চনা করেছেন। তারপর আমি এই দায়িত্ব পালন করছি। আমি এই মন্দির ছেড়ে যাব না। যদি ওরা (তালিবান) আমাকে মেরেও ফেলে, তাহলেও আমি তাকে আমার ঈশ্বর-সেবা বলেই মনে করব।”

[আরও পড়ুন: রক্তে লাল আফগানভূমে Taliban-এর দিকে বন্ধুত্বের হাত বাড়াল চিন ]

সংবাদমাধ্যমকে রাজেশ আরও জানিয়েছেন, “কিছু হিন্দু আমাকে পরামর্শ দিয়েছেন, অবিলম্বে কাবুল ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে। কোনও নিরাপদ জায়গায় চলে যেতে বলেছেন আমায়। ওঁরা জানিয়েছেন, ওঁরা আমার যাত্রা ছাড়াও অন্যত্র থাকার বন্দোবস্তও করে দেবেন। আমার কোনও অসুবিধা হবে না। কিন্তু আমি এই মন্দির ছেড়ে যেতে পারব না। এই মন্দির আমার পূর্বপুরুষদের স্মৃতি-বিজড়িত। ছেড়ে যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।”

রবিবার বাঁধভাঙা জলের মতো কাবুলের প্রতিটি গলিঘুঁজিতে ঢুকে পড়ে তালিবান যোদ্ধারা। দেশ ছেড়ে পালান আফগান প্রেসিডেন্ট আশরফ ঘানি। আফগানিস্তানের দখল এখন তালিবান জঙ্গিদের হাতে। কাবুলের রাস্তায় ও বিমানবন্দরে দেশ ছাড়ার জন্য ভিড় করেন হাজার হাজার মানুষ। দেশের মানুষ প্রাণ বাঁচাতে উঠে পড়েছেন বিমানের ছাদে। উড়ে যাওয়ার সময়ে বিমানের ছাদ থেকে পড়ে মারা গিয়েছেন দু’জন। এমন ভয়াবহ ছবি দেখে শিউরে উঠেছে গোটা বিশ্ব।

[আরও পড়ুন: ‘গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা নয়, Afghanistan-এ আল কায়দাকে শেষ করতে গিয়েছিল America’, মন্তব্য বাইডেনের ]

তালিবানরা দেশের দখল নেওয়ার পর থেকেই দেশ ছাড়ার জন্য মরিয়া সাধারণ মানুষ। রাজপথে চলন্ত গাড়ি ছেড়ে দিয়ে বিমানে ওঠার জন্য দৌড়তেও দেখা গিয়েছে অনেককে। এই পরিস্থিতিতেও নিজের পূর্বপুরুষদের স্মৃতি আঁকড়ে পড়ে থাকতে চান রাজেশ কুমার।

Advertisement
Next