মুখ্যমন্ত্রী ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ! ডায়মন্ড হারবারে দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে দায়ের FIR

11:09 AM Jun 08, 2022 |
Advertisement

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: মুখ্যমন্ত্রী ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ। রাজ্য সরকারকে সাধারণ মানুষের কাছে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা ও অশান্তি পাকানোর চেষ্টার অভিযোগ। এবার ডায়মন্ড হারবার থানায় এফআইআর দায়ের সাংসদ দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) বিরুদ্ধে। অবিলম্বে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন অভিযোগকারী।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

বিষয়টি ঠিক কী? কয়েকদিন আগে ডায়মন্ড হারবার শহরের একটি পেট্রোল পাম্পের সামনে থেকে উদ্ধার হয় ডায়মন্ড হারবার থানার আর্মড ফোর্সের এএসআই সমীর দাসের মৃতদেহ। মৃত্যুর কারণ নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছিল, দুর্ঘটনাজনিত কারণে মৃত্যু হয়েছে ওই এএসআইয়ের। যদিও তদন্ত এখনও শেষ হয়নি। সম্প্রতি সেই পুলিশ কর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছেন দিলীপ ঘোষ।

[আরও পড়ুন: প্রেমিকার বিয়ে ঠিক হতেই আত্মঘাতী যুবক! ক্ষোভে তরুণীর বাড়ি ভাঙচুর প্রেমিকের পরিবারের, উত্তপ্ত ডোমজুড়]

সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি দাবি করেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) রাজ্যে পুলিশও সুরক্ষিত নন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) ডায়মন্ড হারবার মডেলকেও কাঠগড়ায় তোলেন। সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই পুলিশের দ্বারস্থ ডায়মন্ড হারবারের বাসিন্দা অমিত সাহা। পুলিশ অফিসারের মৃত্যুর তদন্ত চলাকালীন কীভাবে একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে দিলীপ ঘোষ, এমন মন্তব্য করলেন সেই প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। ইতিমধ্যেই ডায়মন্ড হারবার থানায় এফআইআর করেছে ডায়মন্ড হারবার টাউন তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি ও পুরসভার কাউন্সিলর অমিত সাহা।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

অমিত সাহার দাবি, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে নয়, স্থানীয় বাসিন্দা হিসেবেই থানায় এই অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। এ বিষয়ে এখনও দিলীপ ঘোষের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

[আরও পড়ুন: মাদক খাইয়ে অন্তর্বাসে স্বামীর মুখ বেঁধে খুনের চেষ্টা! নেপথ্যে মানসিক সমস্যা নাকি বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক?]

Advertisement
Next