গুজরাটে ভোটের আগে বড় ধাক্কা বিজেপির, দল ছাড়লেন প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

07:45 PM Nov 05, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিভিন্ন সমীক্ষক সংস্থা গুজরাটে বিজেপির ষষ্ঠবার ক্ষমতায় ফেরা নিয়ে যতই ভবিষ্যদ্বাণী করুক না কেন, গেরুয়া শিবিরে কিন্তু ছুটকো-ছাটকা অশান্তি লেগেই আছে। দিনকয়েক আগেই বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শঙ্করসিন বাঘেলার (Shankarsinh Vaghela) ছেলে। এবার বিজেপি ছাড়লেন দলের আরও এক প্রভাবশালী নেতা।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

শনিবারই সরকারিভাবে বিজেপির (BJP) সঙ্গত্যাগ করেছেন গুজরাটের প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা চারবারের বিধায়ক জয় নারায়ণ ভ্যাস। বর্ষীয়ান এই নেতা জানিয়েছেন, বিজেপি নেতৃত্বের প্রতি বিতৃষ্ণ হয়েই দলত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। তিনি জানিয়েছেন, নিজের পুরনো আসন সিদ্ধাপুর থেকেই ভোটে লড়বেন। আম আদমি পার্টি (AAP) এবং কংগ্রেস (Congress) দুই দলের যাওয়ার রাস্তাই আপাতত খোলা রাখছেন তিনি। যদিও নিজের ইস্তফাপত্রে বিজেপি নেতা কোনও কারণ উল্লেখ করেননি।

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: পঞ্চায়েত ভোটের আগে ‘দুয়ারে হিন্দুত্ব’ VHP’র, বাংলাকে অশান্ত করার চক্রান্ত, অভিযোগ তৃণমূলের]

জয় নারায়ণ ভ্যাস (Jay Narayan Vyas) চারবারের বিধায়ক। বিজেপির টিকিটে মোট সাতবার ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। ২০১৭ সালে কংগ্রেস প্রার্থীর কাছে হারেন তিনি। বিজেপি এবার পছন্দের সিদ্ধাপুর আসন থেকে ভ্যাসকে দাঁড় করাতে রাজি নয়। সেটাই মূলত তাঁর দলত্যাগের কারণ। শোনা যাচ্ছে, কংগ্রেস এবং আপ দুই শিবিরের সঙ্গেই তিনি যোগাযোগ করেছেন। হাত শিবির সূত্রের খবর, ভ্যাসের সঙ্গে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কথা হয়েছে। আবার আপও দাবি করছে, তাঁদের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছেন গুজরাটের (Gujarat) ওই প্রাক্তন মন্ত্রী।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

[আরও পড়ুন: অন্য নারীতে মজে স্বামী, পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে ‘খুন’]

টানা ২৭ বছর ক্ষমতায় থাকায় গুজরাটে সরকার বিরোধী হাওয়া প্রবল। তারপর মোরবির দুর্ঘটনা ‘গোদের ওপর বিষফোড়া’র মতো হয়েছে গেরুয়া শিবিরের। গতবারই পাঁচবারের মধ্যে সবচেয়ে কম আসনে জয় পায় মোদি-অমিত শাহদের (Amit Shah) দল। ১৮২ আসনের মধ্যে ঝুলিতে আসে ৯৯টি। কংগ্রেস পায় ৭৭ আসন। অন্যান্যরা ৬টি। এর মাঝে পাঁচ বছর অতিক্রান্ত। পাঁচবছরে মুখ্যমন্ত্রী বদল করতে হয়েছে পদ্ম শিবিরকে। শাসক বিজেপি (BJP) ও প্রধান বিরোধী কংগ্রেসের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী।

Advertisement
Next