Golden Temple: স্বর্ণমন্দিরে ঢুকে শিখ ধর্মগ্রন্থকে অপবিত্র করার চেষ্টা, উন্মত্ত জনতার মারে মৃত অভিযুক্ত

08:43 PM Dec 18, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের পাঞ্জাবের স্বর্ণমন্দিরকে (Golden Temple) অপবিত্র করার চেষ্টা চালাল এক ব্যক্তি। পবিত্র ধর্মগ্রন্থের উপর জুতো পরে উঠে পড়ে সে। অভিযোগ, পবিত্র কৃপান চুরিরও চেষ্টা করা হয়। কিন্তু উপস্থিত জনতা তাকে আটকে দেয়। পরে উন্মত্ত জনতার মারে মৃত্যু হয় অভিযুক্তর। যদিও পুলিশের তরফে মৃত্যুর কথা শিকার করা হয়নি। পুলিশের দাবি, অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Advertisement

শনিবার স্বর্ণমন্দিরের গর্ভগৃহে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান চলছিল। সরাসরি সম্প্রচারও করা হচ্ছিল অনুষ্ঠানটি। সেখানে রীতিমাফিক শিখদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ ও ধর্মীয় সামগ্রী রাখা ছিল। আচমকাই দেখা যায়, এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি ব্যারিকেড টপকে সংরক্ষিত এলাকার মধ্যে ঢুকে পড়ে। ধর্মীয় গ্রন্থের উপর পা রেখে দেয় সে। এই কাণ্ড দেখে ক্ষিপ্ত জনতা সঙ্গে সঙ্গে তাকে টেনে বের করে আনে। শুরু হয় বেধরক মারধর।

[আরও পড়ুন: নবান্নের কাছে উলটে গেল ছাইবোঝাই কন্টেনার, চাপা পড়ে মৃত্যু পথচারীর]

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে থাকা ভিডিও ফুটেজ বলছে, গণধোলাইয়ে মন্দির চত্বরে মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির। তবে অভিযুক্তর নাম-পরিচয় এখনও জানা যায়নি। কী উদ্দেশ্যে সে মন্দিরে ঢুকে এই অপকর্ম করল, তাও স্পষ্ট নয়। যদিও পুলিশের তরফে মৃত্যুর কথা স্বীকার করা হয়নি। অভিযুক্তকে তারা আটক করেছে বলে পুলিশ সূত্রের দাবি। এই ঘটনায় অমৃতসরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এ ধরনের ঘটনায় এলাকায় সম্প্রীতি নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন অনেকে।

Advertising
Advertising

 

[আরও পড়ুন: প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে ‘বান্ধবী’র নগ্ন ছবি ওয়েবসাইটে আপলোড করল যুবক! তারপর…]

প্রসঙ্গত, মাত্র চার দিন আগেও অমৃতসরে স্বর্ণমন্দিরে এধরনের একটি ঘটনা ঘটে। শিখদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ ছুড়ে জলে ফেলে দেওয়া হয়েছিল। রাজ্যের বিধানসভা ভোটের আগে পর পর এ ধরনের ঘটনা চিন্তা বাড়িয়েছে পাঞ্জাব প্রশাসনের। 

Advertisement
Next