Advertisement

করোনাবিধি ভাঙার ‘শাস্তি’, মোড়লদের পায়ে পড়ে ক্ষমা চাইতে হল তিন ‘দলিত’ বৃদ্ধকে

03:28 PM May 16, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উন্নতির হাইওয়েতে দেশ। চাঁদের মাটিতে পা রেখেছে দেশের মানুষ। মঙ্গলের মাটি ছুঁয়েছে দেশের পাঠানো মহাকাশযান। তবুও জাতপাত, উঁচু-নিচুর অন্ধকার থেকে এখনও বেরিয়ে আসতে পারেননি এদেশের অনেকেই। তামিলনাড়ুর (Tamil Nadu) ভিল্লুপুরম এলাকার এমনই একটি ঘটনা সামনে এল। সেখানে তিন তথাকথিত ‘দলিত’ বৃদ্ধকে গ্রামের মোড়লদের পায়ে পড়ে ক্ষমা চাইতে হল।

Advertisement

স্থানীয় এবং পুলিশ (police) সূত্রে জানা গিয়েছে, ১২ মে ভিল্লুপুরমের ওট্টানন্ধাল পঞ্চায়েত এলাকায় এক ‘দলিত’ পরিবার একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। তাঁদের কম লোক নিয়ে ছোট করে অনুষ্ঠান আয়োজনের অনুমতি নেওয়া ছিল। কিন্তু অভিযোগ, অনুষ্ঠানে প্রচুর মানুষ উপস্থিত হন।

বিষয়টি থিরুভেন্নাইনাল্লুর থানার কানে যেতেই আনুষ্ঠানের আয়োজকদের ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাঁদের ছেড়েও দেওয়া হয়। তবে তার আগে তাঁদের কাছ থেকে মুচলেখা নেওয়া হয়, যাতে করোনার সময় এমন ভাবে বেশি লোক নিয়ে তাঁরা আর অনুষ্ঠানের আয়োজনের না করেন। মুচলেখা দিয়ে তাঁরা গ্রামে ফেরেন।

গ্রামে ফিরেও তাঁদের হয়রানির শেষ নেই। ১৪ মে সেখানে তাঁদের এবার পঞ্চায়েতের মোড়লদের পাল্লায় পড়তে হয়। গ্রামের গাছতলাতেই বসে পঞ্চায়েত। সেখানে অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য তিন ‘দলিত’ বৃদ্ধকে দোষী সাবস্ত করা হয়। সবার সামনে তাঁদের ক্ষমা চাওয়ার নিদান দেন মোড়লরা। সেই নিদান মেনেও নেন তিনি ‘দলিত’ বৃদ্ধ। সবার সামনে তাঁরা মাটিতে শুয়ে পঞ্চায়েতের মোড়লদের কাছে ক্ষমা চান।

[আরও পড়ুন: ফের কমল দৈনিক সংক্রমণ, দেশে একদিনে করোনাজয়ী সাড়ে তিন লক্ষের বেশি]

এই ঘটনার সময় কেউ ছবি তুলে রাখেন। পরে যা প্রকাশ্যে চলে আসে। বুধবার বিষয়টি সামনে আসার পর স্থানীয় প্রশাসনকে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে। এখনও কেমন করে বেআইনি ভাবে শ্রেণি বিভাজনের নামে মানুষকে নির্যতন করা চলছে, তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। যদিও ইতিমধ্যেই ৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত করে দেখছে।

[আরও পড়ুন: শক্তি বাড়িয়ে আরও ‘ভয়াবহ’ সাইক্লোন ‘তাওকতে’, আছড়ে পড়ল কর্ণাটক-গোয়াতে]

Advertisement
Next