Advertisement

Post Poll Violence: হাই কোর্টের রায়ে অখুশি রাজ্য সরকার, সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার ভাবনা

02:34 PM Aug 19, 2021 |

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: ভোট পরবর্তী হিংসা (Post Poll Violence) মামলা নিয়ে রাজ্য সরকার এবং বিরোধী বিজেপির মধ্যে অভিযোগ-অভিযোগ খারিজ নিয়ে তরজা চলছিল। তারই মাঝে খুন, ধর্ষণের মতো বড় ঘটনায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাই কোর্ট। আদালতের রায়ে যথেষ্ট অখুশি রাজ্য সরকার। সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার ভাবনাচিন্তাও চলছে।  তবে কলকাতা হাই কোর্টের রায় যেন অক্সিজেন জোগাচ্ছে গেরুয়া শিবিরকে। তাই রায়কে স্বাগত জানিয়েছে বিজেপি।

Advertisement

সাংসদ সৌগত রায় (Sougata Roy) বলেন, “আমি এই রায়ে অখুশি। কারণ, আইনশৃঙ্খলা যা পুরোপুরি রাজ্যের বিষয় সেটার মাঝে বারবার সিবিআইয়ের (CBI) চলে আসা কাম্য নয়। রাজ্য সরকার নিশ্চয়ই এর বিচার করবে এবং প্রয়োজন মনে করলে আপিলে যাবে। যদি রায় বলবৎ থাকে তাহলে সিবিআই বা সিট যা তদন্ত করার করবে। কিন্তু আমি মনে করছি এই রায়ের বিরুদ্ধে রাজ্য সরকার আবেদন করবে। এটাকে আটকানোর চেষ্টা করা হবে। বিজেপি জনগণের আদালতে হেরে গিয়ে এখন হাই কোর্টের আশ্রয় নিয়েছে। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের (NHRC) কোনও এক্তিয়ার নেই রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার ব্যাপার দেখার। ওরা কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও বাহিনী বা সেনাবাহিনী মানবাধিকার লঙ্ঘন করলে তা দেখতে পারে। সেখানে হাই কোর্ট দায়িত্ব দিয়েছিল মানবাধিকার কমিশনকে। তাদের মধ্যেও এমন লোক ছিল যারা প্রত্যক্ষভাবে বিজেপি (BJP) করত। আমরা হাই কোর্টে আপত্তি জানিয়েছিলাম। তারা এরকম রায় দিলে আমাদের আর কী করার আছে? আমরা তো আর হাই কোর্টের রায়কে প্রভাবিত করতে পারব না। সরকার নিশ্চয়ই আদালতে যাবে।”

হাই কোর্টের রায়ে অখুশি সৌগত রায়

[আরও পড়ুন: ‘অন্য দলে যাচ্ছি না’, Dilip Ghosh’কে তুলোধোনা করে রাজনীতি ছাড়লেন Rupa Bhattacharjee]

এই একই ইস্যুতে টুইটে ক্ষোভপ্রকাশ করেছেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)। তিনি লেখেন, “হাই কোর্টের নির্দেশ নিয়ে প্রকাশ্য বিরোধিতা করা যায় না। ওঁরা নির্দেশ দিয়েছেন। সরকার এবং দলের শীর্ষ নেতৃত্ব এই নির্দেশ খতিয়ে দেখে প্রতিক্রিয়া জানাবেন। সম্ভাব্য আইনি দিকগুলি বিবেচিত হবে। আমরা মনে করি জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্ট সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। তবে হাই কোর্ট নিয়ে এখন কোনও মন্তব্য করছি না।”

Advertising
Advertising

তবে শাসক শিবির অখুশি হলেও, গেরুয়া শিবির এই রায়ে যথেষ্ট খুশি। হাই কোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয় (Kailash Vijayvargiya)।

উল্লেখ্য, কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta High Court) বৃহত্তর বেঞ্চ বৃহস্পতিবার ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় রায়দান করে। খুন, গণধর্ষণ, ধর্ষণের মতো বড় ঘটনাগুলির সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, মারধর, ভাঙচুরের মতো অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ মামলার তদন্তে ৩ সদস্যের SIT গঠনের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এছাড়া ভোট পরবর্তী হিংসায় ক্ষতিগ্রস্তদের রাজ্য সরকারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট।

কলকাতা হাই কোর্ট

[আরও পড়ুন: ‘বাংলায় ফিরতে Mamata Banerjee’র উপর ভরসা করলে তালিবানদের গুলি নিশ্চিত’, খোঁচা Dilip-এর]

Advertisement
Next