Advertisement

দুইয়ের ঘরের নামতা জানেন না হবু বর, বিয়েই বাতিল করে দিলেন কনে

03:44 PM May 09, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিয়ের জন্য অনেকেই বিশেষ বিশেষ পরিকল্পনা করে থাকেন। প্রস্তুতিও নেন আলাদাভাবে। তবে কখনওই হয়তো নামতা মুখস্থ করার কথা কেউ ভাববেন না! কিন্তু সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) এমনই একটি ঘটনা সামনে এসেছে, যা জানার পর অনেকেই কিন্তু একবার হলেও নামতায় চোখ বুলিয়ে নেবেন। কারণ যোগীর রাজ্যের এক ব্যক্তি দুইয়ের ঘরের নামতা বলতে না পারায় বিয়ে করতে পারলেন না। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। হবু বর কেবলমাত্র দুইয়ের ঘরের নামতা বলতে না পারায় বিয়ের অনুষ্ঠান থেকেই উঠে গেলেন কনে। বাতিল করে দিলেন বিয়েও।

Advertisement

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের মাহোবা জেলায়। জানা গিয়েছে, দুই বাড়ির মধ্যে আলোচনার পরই বিয়ে ঠিক হয়। কিন্তু পাত্র যে ন্যূনতম পড়াশোনা জানেন না, সেকথা তাঁর বাড়ির লোক বেমালুম লুকিয়ে যায়। কিন্তু পাত্রী ঠিক করে নেন, বিয়ের দিনই প্রয়োজনে পরীক্ষা নেবেন পাত্রের। সেই মতো বিয়ের দিন পাত্র আসতেই সবার সামনেই তাঁকে প্রশ্নটি করে বসেন কনে।

[আরও পড়ুন: মাত্র ২৭ সেকেন্ডে সন্তানের জন্ম দিয়ে ‘বিশ্ব রেকর্ড’ মহিলার, কীভাবে সম্ভব হল?]

এদিকে, এই বিষয়ে কিছু জানতেন না ওই পাত্র। তিনি নির্ধারিত সময়েই বিয়ে বাড়িতে পৌঁছে যান। কিন্তু আচমকাই কনে তাঁকে দুইয়ের ঘরের নামতা মুখস্থ বলতে বলেন। কিন্তু পড়াশোনা না জানায়, তা বলতে পারেননি। এরপরই কনে সবার সামনেই স্পষ্ট জানিয়ে দেন, এই বিয়ে তিনি করতে পারবেন না। এমনকী এরপর বিয়ের মণ্ডপ থেকেও উঠে যান। পরিষ্কার জানিয়ে দেন, যে অংকের এই ছোট্ট জিনিসটিও জানে না, তাঁকে বিয়ে তিনি করতে পারবেন না। পাত্রীর এক আত্মীয়ের অভিযোগ, হবু বর যে একেবারেই নিরক্ষর, তা তাঁর বাড়ির লোক কাউকেই জানায়নি। ব্যাপারটি বেমালুম লুকিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু শেষরক্ষা অবশ্য হল না। পুলিশ আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে বিয়েটি বাতিল হয়ে গিয়েছে। দু’পক্ষই একে অপরকে দেওয়া উপহার ফিরিয়েও নিয়েছেন। তবে ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর অনেকেই কনের ওই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছেন। অনেকে আবার এই নিয়ে মজাও করেছেন।

[আরও পড়ুন: OMG! নিজের বাড়িতেই আগুন লাগিয়ে বাইরে চেয়ারে আরাম করে বসে দেখলেন মহিলা!]

Advertisement
Next