Viral Video: পাতে আস্ত পুরুষাঙ্গ! হোটেল থেকে আনা প্রিয় খাবার খেতে গিয়ে ক্ষুব্ধ মহিলা

05:31 PM Sep 09, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হোটেল (Hotel) থেকে প্রিয় খাবার কিনে বাড়িতে নিয়ে এসেছিলেন। নিজের ঘরে বসে সময় নিয়ে, আনন্দ করে খাবেন, এই-ই ছিল মনোবাসনা। কিন্তু কপালে সেই আনন্দ আর বুঝি সইল না! কারণ, খাবারটা তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করতে গিয়েই চোখ কপালে উঠে গেল, খাওয়াও শিকেয় উঠল প্রায়। প্রিয় খাবারের মধ্যে পুরুষাঙ্গের (penis) টুকরো! এটা বোঝামাত্রই ঘানার মহিলা একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। নিমেষেই ভাইরাল সেই ভিডিও। দেখেশুনে নেটিজেনরা ঘৃণায়, ক্ষোভে ফুঁসছেন। নেটদুনিয়া আপাতত সরগরম ঘানার মহিলার পোস্ট করা সেই ভিডিও নিয়ে।

Advertisement

Advertising
Advertising

ঘটনা ঠিক কী? জানা যাচ্ছে, ঘানার (Ghana) বাসিন্দা আকাউজা নামে এক মহিলা হোটেলে গিয়েছিলেন নিজের প্রিয় খাবার কিনতে। সেখান থেকে দাম দিয়ে ‘টুয়ো জাফি’ (Tuo Zaafi) খাবারটি তিনি বাড়িতে নিয়ে আসেন। প্যাকেট খুলে খাওয়া শুরু করেন। দিব্যি চলছিল খাওয়াদাওয়া। কিন্তু শেষধাপে এসেই তাল কাটল। মাংসের টুকরো ভেবে খেতে গিয়ে তাঁর সন্দেহ হয়। ভালভাবে পরীক্ষা করে দেখেন, মাংস তো নয়, সেটি পুরুষাঙ্গের একটি অংশ।

[আরও পড়ুন: পরপুরুষের টানই আলাদা! স্বামী-সন্তান রেখে দশ বছরে ২৫ বার ঘর ছাড়লেন গৃহবধূ]

আর তাতেই খাওয়ার মেজাজ গেল বিগড়ে। রেগেমেগে খাবারের শেষাংশে মিশে থাকা ওই পুরুষাঙ্গের ছবি, ভিডিও তিনি শেয়ার করলেন সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায়। লিখলেন, ”মাংসের টুকরোগুলো খেতে খেতে শেষপথে এসে দেখি, একটা টুকরো একটু বড়। তখনই সন্দেহ হয়। আমি সেটা তুলে নিয়ে ভাল করে পরীক্ষা করে দেখি, আরে! মাংসের টুকরো কই, এ তো পুরুষাঙ্গের একটা অংশ।” এরপর নেটিজেনদের প্রতি আকাউজার সতর্কবার্তা, কোনও খাবার কিনতে গেলে আগে ভাল করে পরীক্ষা করে নিতে হবে।

[আরও পড়ুন: সাতশোরও বেশি মহিলার অন্তর্বাস চুরি, আজব নেশার জেরে শ্রীঘরে প্রৌঢ়]

ব্যস, নিমেষেই ভাইরাল সেই ভিডিও (Viral Video)। সবাই তা দেখে নিন্দেয় মুখর। কেউ কেউ বলছেন, ওই হোটেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করুক আকাউজা। কেউ আবার প্রশ্ন তুললেন, খাবারটি পুরোটা পরীক্ষা না করে তিনিই বা খেলেন কেন? এমনই নানা মন্তব্যে ভরে গিয়েছে আকাউজার সোশ্যাল মিডিয়ার পাতা। তবে হোটেলের রন্ধন প্রণালি নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। নিজেদের অজান্তেই কি ওই রান্নায় পুরুষাঙ্গ মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে? নাকি এই হোটেলের আড়ালে মানব অঙ্গ পাচার কিংবা অন্য কোনও অনৈতিক কাজের চক্র সক্রিয়? আকাউজার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Advertisement
Next