Advertisement

মঙ্গল অভিযানে আমেরিকা, চিনের পর নাম লেখাচ্ছে ব্রিটেনও, দু’বছরের মধ্যে পাড়ি দেবে রোভার

04:55 PM Nov 27, 2020 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গল (Mars) অভিযানের দৌড়ে এবার নাম লেখাতে চলেছে ব্রিটেনও। আগামী দু বছরের মধ্যে লাল গ্রহে তারা পাঠাবে রোভার। বিশিষ্ট বিজ্ঞানী রোজালিন্ড ফ্রাংকলিনের (Rosalind Franklin) নামে নাম দেওয়া হয়েছে রোভারটির। সম্প্রতি পরীক্ষায় পাশ করেছে তাদের মঙ্গলযানটি। আর তারপরই তারা ‘রোজালিন্ড ফ্রাংকলিন’ প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছে। আরও চমকপ্রদ তথ্য হল, রোভারটিকে মঙ্গলের মাটিতে পৌঁছে দিতে ১১৫ ফুট দীর্ঘ প্যারাশুট ব্যবহার করবেন ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা। ওরেগন মরুভূমিতে পরীক্ষায় পাশ গিয়েছে প্যারাশুটটিও।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

করোনা ভাইরাস (Coronavirus) আচমকা থাবা না বসালে চলতি বছরের মাঝামাঝিতে মঙ্গলমুখী হত ‘রোজালিন্ড ফ্রাংকলিন’। কিন্তু লকডাউনে সব স্তব্ধ হয়ে পড়ায় কোনও প্রস্তুতিই নেওয়া যায়নি। তাই সেখানকার দুটি স্পেস এজেন্সি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ২০২২সালে মঙ্গলযানটিকে পাঠানো হবে। সেইমতো শুরু হয়ে গিয়েছে প্রস্তুতি।

[আরও পড়ুন: ইসরোর শুক্র অভিযানে অংশ নিতে উৎসাহী সুইডেন, অত্যাধুনিক যন্ত্র দিয়ে সাহায্যের প্রস্তাব]

জানা গিয়েছে, ২০২২ সালের আগস্ট থেকে অক্টোবরের মধ্যে যে কোনও সময় রোভারটি রওনা দেবে লাল গ্রহের উদ্দেশে। পৃথিবীর কক্ষপথ ছাড়িয়ে মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশ করে ২০২৩ সালের প্রথম দিকে তাকে লাল গ্রহের মাটিতে নামাবে ১১৫ ফুট দীর্ঘ প্যারাশুটটি। এরপর ‘রোজালিন্ড ফ্রাংকলিন’ মঙ্গলের মাটিতে প্রাণের অস্তিত্ব খুঁজবে। সাম্প্রতিক পরীক্ষায় প্রায় ২৯ কিলোমিটার উপর থেকে সফলভাবে প্যারাশুটটি রোভারকে অবতরণ করাতে পারে কি না, সেই পরীক্ষায় ১০০ শতাংশ সাফল্য মিলেছে বলে দাবি বিজ্ঞানীদের।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: ভয়াবহ হড়পা বানে ভেসেছিল মঙ্গলের জমি! অতীতে লাল গ্রহে প্রাণের অস্তিত্বের দাবি আরও জোরদার]

এই মুহূর্তে মঙ্গল অভিযানে রয়েছে দুটি রোভার। একটি নাসার পাঠানো পারসিভিয়ারেন্স (Perseverance), আরেকটি চিনের তিয়ানওয়েন-১ (Tianwen-1)। তবে দুটিই মঙ্গলের মাটিতে পৌঁছবে ২০২১এর ফেব্রুয়ারি নাগাদ। আমেরিকা, চিনের পর এবার মঙ্গল অভিযানে তাদের ঠিক পিছনেই দাঁড়াল ব্রিটেন। কোনও দুর্ঘটনা বা ব্যর্থতা এড়াতে প্যারাশুটের মাধ্যমে রোভারকে লাল গ্রহে অবতরণ করানোর পরিকল্পনাটা তাঁদের অভিনবই বটে। ফলে প্রতিবেশী গ্রহ সম্পর্কে আরও দ্রুত বেশি গোপন কথা প্রকাশ্যে আসবে বলেই আশাবাদী বিজ্ঞানীমহল।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next