Advertisement

ইসলাম ছেড়ে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করলেন ইন্দোনেশিয়ার প্রথম রাষ্ট্রপতি সুকার্নোর মেয়ে সুকমাবতী

04:54 PM Oct 27, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইসলাম ছেড়ে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করলেন ইন্দোনেশিয়ার (Indonesia)  প্রথম রাষ্ট্রপতি সুকার্নোর মেয়ে সুকমাবতী সুকার্নোপুত্রি। মঙ্গলবার অর্থাৎ গতকাল সনাতন ধর্মে দীক্ষিত হন তিনি।

Advertisement

[আরও পড়ুন: জিনপিংয়ের সঙ্গে ফোনে কথা ইমরানের, CPEC নিয়ে আলোচনা দুই রাষ্ট্রপ্রধানের]

জানা গিয়েছে, গতকাল ‘সুধি ওয়াধানি’ নামের একটি অনুষ্ঠানে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেন ৬৯ বছরের সুকমাবতী। বালিতে সুকার্নো সেন্টার হেরিটেজ এরিয়াতে ওই অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। সূত্রের খবর, সুকমাবতীর এই সিদ্ধান্তের নেপথ্যে রয়েছেন তাঁর ঠাকুমা ইদা আয়ু নিওমান রাই শ্রিমবেন। বলে রাখা ভাল, ইন্দোনেশিয়ার অন্যতম প্রধান প্রদেশ বালিতে সংখ্যাগুরু হিন্দুরা। তবে ভারতের হিন্দু ধর্মের সঙ্গে এর কিছুটা পার্থক্য রয়েছে। সুকমাবতীর আইনজীবী জানান, সুকমাবতী এই নিয়ে অনেক পড়াশোনা করেছেন আর হিন্দু ধর্মশাস্ত্র নিয়ে ওনার অনেক জ্ঞান রয়েছে। সুকমাবতীর এই সিদ্ধান্তে ওনার পরিবারের লোকেরাও ওনার পাশে দাঁড়িয়েছে।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

সুকমাবতী প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি সুকার্নোর তৃতীয় কন্যা তথা ইন্দোনেশিয়ার প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি মেগাবতী সুকার্নোপুত্রির ছোট বোন। বছর সত্তরের সুকমাবতী ইন্দোনেশিয়াতেই থাকেন। ২০১৮ সালে এক মুসলিম মৌলবাদী সংগঠন সুকমাবতীর বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলেছিল। উল্লেখ্য, সুকমাবতী একটি কবিতা পড়েছিলেন, আর সেই নিয়েই মৌলবাদীরা তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননা করার অভিযোগ তুলেছিল। এই ঘটনার পর সুকমাবতী নিজের কবিতার জন্য ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। যদিও, এর পরেও তাঁকে নিয়ে বিতর্ক থামেনি আর সময়ে সময়ে ওনাকে নিয়ে সমালোচনা হতে থাকে।

উল্লেখ্য, মুসলিম প্রধান ইন্দোনেশিয়ার জাতির জনক তথা প্রথম প্রেসিডেন্ট ছিলেন সুকার্নো। স্বাধীনতার পর দেশটিকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে তাঁর অবদান অসামান্য। ভারতের প্রধানমন্ত্রী জহরলাল নেহেরুর সঙ্গে ঠান্ডা লড়াইয়ের সময় বানডুং কনফারেন্স জোট নিরপেক্ষ আন্দোলনের অন্যতম কান্ডারি ছিলেন সুকার্নো। ইন্দোনেশিয়ার রাজনীতিতে আজও অত্যন্ত প্রভাবশালী সুকার্নো পরিবার। ফলে সুকমাবতীর এহেন সিদ্ধান্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

[আরও পড়ুন: ৬ মাসের মধ্যেই আমেরিকায় হামলা চালাতে পারে আইএস! আশঙ্কা মার্কিন গোয়েন্দাদের]

Advertisement
Next