Advertisement

গুরুতর অসুস্থ খালেদা জিয়া, বিএনপি নেত্রীর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত গুজব রুখতে সতর্ক অবস্থান পুলিশের

10:04 AM Nov 24, 2021 |

সুকুমার সরকার, ঢাকা: গুরুতর অসুস্থ বাংলাদেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। লিভার-সহ একাধিক সমস্যায় ভুগছেন দেশের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি’র সুপ্রিমো। তাঁকে দ্রুত বিদেশে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসার করানোর দাবি জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: প্রেমের টানে মেক্সিকো ছেড়ে বাংলাদেশে যুবতী, বিয়ের পর বদলে নিলেন ধর্ম-নামও]

মঙ্গলবার ঢাকায় দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন। তাঁর শারীরিক নানা জটিলতার মধ্যে এই মুহূর্তে লিভারের সমস্যাই সবচেয়ে বেশি। মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকদের পরামর্শ, খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে বিদেশের হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার প্রয়োজন রয়েছে। কারণ, এখানকার হাসপাতালগুলিতে অত্যাধুনিক সরঞ্জামের অভাব রয়েছে। এ ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য বা জার্মানির কোনও হাসপাতাল হতে পারে।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি কি অংশ নেবে? এই প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, “বর্তমান সরকারের অধীনে কোনও জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা যাব না এটা পরিষ্কার। যতক্ষণ নিরপেক্ষ সরকারের অধীন নির্বাচনের ব্যবস্থা না হয়। কারণ, এ ধরনের নির্বাচনের কোনও যুক্তি নেই, অর্থ নেই। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা ও তাঁর সাজা একেবারেই অগ্রহণযোগ্য। তাঁকে ন্যূনতম সম্মান তো দেওয়া হচ্ছেই না, উল্টো নানা কটূক্তি করা হচ্ছে, যা তাঁর প্রাপ্য নয়।”

এদিকে, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার (Khaleda Zia) শারীরিক অবস্থা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কেউ যাতে গুজব ছড়িয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করতে না পারে, সে জন্য সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে পুলিশকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে দেশজুড়ে গোয়েন্দা তৎপরতাও বাড়ানো হয়েছে। বলে রাখা ভাল, ২০১৮ সাল থেকে দুই বছরের বেশি সময় ধরে কারাগারে রয়েছেন খালেদা জিয়া। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট এবং চ্যারিটেবল ট্রাস্ট সম্পর্কিত দুটি দুর্নীতির মামলায় ১৭ বছরের সাজা নিয়ে খালেদা জিয়া কারাভোগ করছিলেন।

[আরও পড়ুন: অর্ধেক ভাড়ায় বাসে যাতায়াতের দাবি, বাংলাদেশে একাধিক রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ পডুয়াদের]

Advertisement
Next