Advertisement

মুর্শিদাবাদের কৃষককে গুলি করে খুনের অভিযোগ বিজিবির বিরুদ্ধে, তীব্র উত্তেজনা সীমান্তে

01:29 PM Oct 04, 2021 |

অতুলচন্দ্র নাগ, ডোমকল: ভারতীয় কৃষককে তুলে নিয়ে গিয়ে গুলি করে খুনের অভিযোগ উঠল বাংলাদেশের বিজিবির (Border Guard Bangladesh) বিরুদ্ধে। রবিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) রানিনগরের চর রাজানগর এলাকায়। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, বিজিবি’ই ওই যুবককে খুনের পর ফেলে দিয়েছে পদ্মানদী।

Advertisement

ঘটনার সূত্রপাত শনিবার। অন্যান্যদিনের মতোই ওইদিন সকালে বিওপিতে নাম পরিচয় জমা দিয়ে সীমান্তের চর রাজানগরে কলাইয়ের জমি দেখতে গিয়েছিলেন ভরত মণ্ডল। অভিযোগ, সেই সময় বিজিবির জওয়ানরা এসে ভরত মণ্ডলকে তুলে নিয়ে যায়। শনিবার বিকেল পর্যন্ত ভরত ফিরে না আসায় বিএসএফ খোঁজ করতে শুরু করে। বাড়িতে খবর নিলে জানা যায়, তিনি ফেরেননি। এরপরই বিএসএফের তরফে বিজিবির সঙ্গে যোগাযোগ করে। বিজিবি জানায়, ভরত মণ্ডল তাঁদের হেফাজতেই রয়েছে। শনিবার রাতেই বিএসএফ ও বিজিবির পতাকা বৈঠকের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: ফের অগ্নিকাণ্ড কলকাতায়, বড়বাজার লাগোয়া চারতলা বাড়িতে বিধ্বংসী আগুন, ধোঁয়ায় ঢাকল এলাকা]

বিএসএফ জানায়, রাতে পতাকা বৈঠকের জন্য সীমান্তে গেলেও বিজিবি বৈঠকে হাজির হয়নি। উলটে বাংলাদেশের লোকজন টর্চ জ্বেলে জওয়ানদের বিরক্ত করে। একইভাবে রবিবার সারাদিন একাধিকবার পতাকা বৈঠকে বসার চেষ্টা করে বিএসএফ। এরপরই ছড়িয়ে পড়ে মৃত্যুর খবর। মৃতের স্ত্রী মিনতি মণ্ডল বলেন, “রবিবার দুপুর পর্যন্ত খবর ছিল আমার স্বামী জীবিত আছেন। কিন্তু উদ্ধারের ব্যাপারে বললে বিএসএফ জানায় চেষ্টা চলছে। সন্ধেয় জানতে পারলাম স্বামীকে মেরে ফেলেছে।”

পরিবারের লোকজন দেহ ফেরত পেতে বিএসএফের দ্বারস্থ হয়েছে। বিএসএফের ডিআইজি করণ সিং শেখোয়াত জানান, “এ ব্যাপারে এখনই কোনও খবর জানাতে পারছি না। তথ্য পেলে পেলে জানানো হবে।” কাতলামারী ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য সুমিতা মণ্ডল জানান, “সোমবার সকালেও বিজিবির সঙ্গে পতাকা বৈঠকের কথা ছিল। কিন্তু ওরা বৈঠকে হাজির হয়নি।” বিএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিজিবি তাঁদের সঙ্গে নিয়মমাফিক আচরণ করছে না।” ওই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

[আরও পড়ুন:ফুসফুসে ত্রুটি, কলকাতার চিকিৎসকদের দীর্ঘ প্রচেষ্টায় জন্মের ৪৩২ ঘণ্টা পর শ্বাস নিল শিশু ]

Advertisement
Next