Advertisement

আড়ম্বর বাড়লেও সতর্ক বারাসতের কালীপুজোর কমিটিগুলি, কোভিডবিধি মেনে তৈরি হচ্ছে মণ্ডপ

04:49 PM Oct 26, 2021 |

অর্ণব দাস, বারাসত: বারাসত এবং মধ্যমগ্রামের কালীপুজোর (Kali Puja 2021) খ্যাতি রাজ্য জুড়ে। তাই দুর্গাপুজো মিটতেই কালীপুজোর তোড়জোড় শুরু বারাসত এবং মধ্যমগ্রামে। কিন্ত করোনার (Coronavirus) কারণে এই দুই এলাকার পুজো গত বছর থেকেই আড়ম্বরহীন। এবারও কোভিডের (COVID-19) জন্য ছোট করে পুজো হলেও তুলনায় আগের বারের থেকে কিছুটা বেশি আড়ম্বর হবে শ্যামা মায়ের আরাধনায়। থাকবে আলোকসজ্জা। তবে সবাই কোভিড বিধি মেনেই করবেন এবারের পুজো।

Advertisement

এবার বারাসত মধ্যমগ্রামের বেশিরভাগ কালীপুজোর উদ্বোধন হবে ৩ নভেম্বর। তবে ৭ নভেম্বর রাত বারোটার পর পুজামণ্ডপগুলির আলোকসজ্জা বন্ধ করে দিতে হবে। বারাসতের বড় পুজো গুলির মধ্যে অন্যতম কেএনসি রেজিমেন্ট। এবারে কেএনসি রেজিমেন্টের পুজোর মণ্ডপ হবে বাংলাদেশে এক জমিদার বাড়ির আদলে। কোভিডবিধি মেনেই পুজোর আয়োজন করেছেন উদ্যোক্তারা। এবার আলোকসজ্জা করা হবে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা।

ফাইল চিত্র

নবপল্লী সর্বজনীনের এবারের মণ্ডপে কোভিডবিধি মেনে তিনদিক খোলা। প্রতিমা হচ্ছে সাবেকি। সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে পুজো ছোট হলেও পুজোর প্রতিটি দিনই হবে দুস্থদের বস্ত্র দান এবং খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হবে। বারাসত নবপল্লী বয়েজ স্কুল সংলগ্ন মাঠে আমরা সবাই ক্লাবের পুজো কোভিড সর্তকতা মেনেই করা হচ্ছে। গুহার মধ্যে মন্দিরের আদলে তৈরি হচ্ছে মণ্ডপ। তবে অতিমারীর কারণে দর্শনার্থীদের দূর থেকে দর্শন করতে হবে প্রতিমা।

বারাসত ১১ নম্বর রেল গেট সংলগ্ন সন্ধানী ক্লাবের এবারের পুজোর থিম ‘প্রতীক্ষা’। পুজোর উদ্যোক্তারা এবার চন্দননগর থেকে লাইট এনে আলোকসজ্জা করবেন বলে জানা গেছে। পুজোর দিনগুলোর মধ্যে একদিন রক্তদান শিবিরেরও আয়োজন করা হবে পুজো কমিটির পক্ষ থেকে। গত বছরের মতো এবছরও কোভিড বিধি মেনে আড়ম্বর ছাড়া কালীপুজোর আয়োজন করেছে বারাসত রেল স্টেশন সংলগ্ন পায়োনিয়ার ক্লাবের পুজো। থিমের মণ্ডপে থাকবে সাবেকি মা। তবে করোনার বিধি নিষেধের জন্য মণ্ডপে প্রবেশ করতে পারবেন না দর্শনার্থীরা।

ফাইল ছবি

[আরও পড়ুন: GTA নির্বাচন, ত্রিস্তর পঞ্চায়েত ব্যবস্থা, পাহাড় সমস্যার স্থায়ী সমাধানের পথে মুখ্যমন্ত্রী]

বারাসত হেলাবটতলা মোড় সংলগ্ন ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশেই হয় বারাসাত রেজিমেন্টের পুজো। এবারের এই পুজোর থিম নেপালের প্যাগোডা। কোভিডের কথা মাথায় রেখে তিন দিক খোলা মণ্ডপ করছেন উদ্যোক্তারা। দূর থেকেই দর্শন করতে হবে প্রতিমা।নবপল্লী ব্যায়াম সমিতির এবারের পুজোর থিম ‘আনন্দ’। করোনা কালে মানুষের যন্ত্রণা মিটে মায়ের আগমনে মাধ্যমে আনন্দে ফিরবে, এবারের থিমের মাধ্যমে এটাই বোঝাতে চেয়েছেন ক্লাব উদ্যোক্তারা। গতবার আলোকসজ্জা না থাকলেও এবার আলোকসজ্জা করা হবে বলে জানা গিয়েছে। 

ফাইল চিত্র

দক্ষিণ নবপল্লী অ্যাসোসিয়েশন এবছরের ৭২ বছরের পুজোর থিম সবুজায়ন এবং সম্প্রীতি। পুজোর এক উদ্যোক্তাদের কথায়, পুজোর থিমের মাধ্যমে তারা সম্প্রীতি বজায় রেখে সবুজায়নের মাধ্যমে করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের কথা বলার হয়েছে। মধ্যমগ্রাম শহরের অন্যতম কালীপুজো গুলির মধ্যে একটি মাইকেল নগর নেতাজি সংঘের পুজো। মাইসোরের একটি বালাজি মন্দিরের আদলে তৈরি হচ্ছে মণ্ডপ। কোভিড বিধি মেনে মণ্ডপের তিন দিক খোলা থাকছে।

মধ্যমগ্রামের শক্তি সংঘের পুজো এবার ৫০ বছরে পড়ল। পুরনো কলকাতার আদলে এবার তাদের মণ্ডপ সাজানো হচ্ছে। ৫০ বছর পূর্তির কারণে গত বছরের তুলনায় কিছুটা জাঁকজমক থাকবে এবারের পুজোয়। আলোকসজ্জাও করা হবে বলে জানা গেছে। মধ্যমগ্রাম ইয়ং রেক্রিয়েশনের পুজো পাটনার একটি কালী মন্দিরের আদলে করা হচ্ছে গত বছরের তুলনায় পুজো বড় হল অভিজ্ঞতা দিয়ে সতর্কতা মনে করছেন কমিটির উদ্যোক্তারা আলোকসজ্জা থাকবে শুধুমাত্র মণ্ডপ সংলগ্ন এলাকাতে।

[আরও পড়ুন: ​কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের মুখে মৎস্যজীবী, প্রাণপণ লড়াই করেও বাঁচাতে পারলেন না সঙ্গীরা]

Advertisement
Next