Advertisement

বিনয়পন্থীদের পালটা তিন প্রার্থী ঘোষণা গুরুংপন্থীদের, কাকে সমর্থন করবে তৃণমূল?

07:02 PM Mar 23, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: পাহাড়ে নির্বাচনী উত্তাপ বাড়ছে। রবিবার পাহাড়ের তিন বিধানসভা (WB Elections 2021) আসন – দার্জিলিং, কালিম্পং, কার্শিয়াংয়ে প্রার্থী ঘোষণা করে দিলেন বিমল গুরুংপন্থীরা (Bimal Gurung)। একুশের নির্বাচনী লড়াইয়ে গুরুং স্থানীয় স্তরে জনপ্রিয় নেতাদের সামনে রেখেই ঘুরে দাঁড়াতে চাইছেন। তাই তেমন প্রার্থীদেরই বেছে নিয়েছেন তিনি। দেখে নিন পাহাড়ে গুরুংপন্থী তিন প্রার্থী কারা –

Advertisement

  • দার্জিলিং – পিটি ওলা। ইনি বিমল গুরুংয়ের আমলে GTA সদস্য ছিলেন। বরাবর গুরুংয়ের সমর্থক।
  • কার্শিয়াং – নরবু লামা। গুরুংপন্থী নেতা, স্থানীয় স্তরে অত্যন্ত জনপ্রিয়। তাঁকেই এবার নির্বাচনী লড়াইয়ে নামালেন বিমল গুরুং।
  • কালিম্পং- রাম ভুজেল। মোর্চার দীর্ঘদিনের সদস্য, গুরুংয়ের আস্থাভাজন।

পূর্বঘোষণা অনুযায়ী মঙ্গলবার দার্জিলিংয়ে জনসভা করে তিন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন গুরুংপন্থী গোর্খা জনমুক্তি মোর্চারা (GJM)। এর আগে রবিবার বিনয় তামাংপন্থীরাও তিন আসনের জন্য প্রার্থী ঘোষণা করেছিল। তাতে একুশের বিধানসভায় (WB Elections 2021) লড়াইয়ের ময়দানে নামানো হয়েছিল জনপ্রিয় নেতা শিরিং দাহাল, রুদেন লেপচাদের। এবার তারই পালটা দিলেন বিমল গুরুংপন্থীরা। তবে দুই শিবিরেরই দাবি, তাঁরাই তৃণমূলের সমর্থন পাবেন। যদিও বিনয়পন্থী নাকি গুরুংপন্থী – কাদের সমর্থন দেবে তৃণমূল, তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে এখনও। মিরিক পুরসভার চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল নেতা এলবি রাই জানাচ্ছেন, এ বিষয়ে তাঁদের কাছেও কোনও তথ্য নেই। তৃণমূলের হয়ে পাহাড়ে প্রচারেরও সুযোগ নেই। যেহেতু তৃণমূল সরাসরি প্রার্থী দেয়নি এখানে।

[আরও পড়ুন: ভোটের আগে নানুরে উদ্ধার ব্যগভরতি তাজা বোমা, বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত এলাকা]

এ নিয়ে তৃণমূল (TMC) সাংসদ সৌগত রায় ‘সংবাদ প্রতিদিন’কে জানিয়েছেন, “আমরা ২৯১ আসনে প্রার্থী দিয়েছি। পাহাড়ের ৩ আসন আমরা মোর্চাদের ছেড়ে দিয়েছি। ওরা কী করবে ওদের ব্যাপার। ভোটে কারা সেখানে জিতবে, তা এখন থেকেই বলা সম্ভব নয়। ভোটের পর আমরা কী করব, সেটাও এখনই বলে দেওয়া যায় না। কারা আমাদের সমর্থন করছে, কারা আমাদের পাশে চাইছে, তা নিয়েও আমরা আলোচনা করছি না। আগে ওখানে কী ফল হয়, আমরা দেখব। যে ২৯১ আসনে আমরা প্রার্থী দিয়েছি, আপাতত তা নিয়ে বেশি চিন্তিত।” অর্থাৎ আপাতত পাহাড়ে কাউকেই সমর্থন নয়, যাঁরা জিতবেন তাঁদের সঙ্গে পরবর্তীতে নতুন সমীকরণ তৈরি হতে পারে তৃণমূলের, এমনটা মনে করা হচ্ছে। 

[আরও পড়ুন: বিজেপির প্রার্থী তালিকায় চমক, রাসবিহারী থেকে লড়াইয়ে সেনার ‘পোস্টার বয়’]

Advertisement
Next