Advertisement

সীতারামের লাইনেই সিলমোহর, বিজেপিকে রুখতে কংগ্রেসের পাশে থাকবে সিপিএম

01:21 PM Oct 25, 2021 |

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: প্রকাশ কারাত নিয়ন্ত্রিত কেরল লবির প্রবল চাপ সত্ত্বেও বিজেপিকে ঠেকাতে কংগ্রেসের (Congress) পাশে থাকার সিদ্ধান্তে অনড় থাকলেন সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তবে যে রাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে বামেদের বনিবনা নেই সেখানে পরিস্থিতি অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলে কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকের শেষদিনে সাফ জানিয়ে দিলেন ইয়েচুরি (Sitaram Yechury)। একইসঙ্গে প্রকাশ কারাতের মস্তিষ্কপ্রসূত তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনের প্রস্তাবও খারিজ করেন।

Advertisement

সর্বভারতীয়স্তরে বিজেপিকে ঠেকাতে কংগ্রেসের পাশে নাকি সমদূরত্বের লাইনে হাঁটবে পার্টি। এই প্রশ্নে বারেবরে উত্তপ্ত হয় সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠক। বৈঠকের প্রথম দিনেই কংগ্রেসের পাশে থাকার প্রশ্নে প্রবল আপত্তি তোলে দক্ষিণী রাজ্যগুলি। ‌মূলত কেরল (Kerala), তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশের নেতৃত্ব চাপে ফেলে দেয় সীতারাম ইয়েচুরি ও বঙ্গ সিপিএমকে (CPIM)। বিজেপির মতো কংগ্রেসের সঙ্গেও সমান দূরত্ব রেখে চলার পক্ষে সওয়াল করেন তাঁরা। পালটা এই মুহূর্তে বিজেপিকে ঠেকানো পার্টির প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত বলে গলা ফাটান বাংলার নেতারা।

[আরও পড়ুন: ‘গোয়ায় তৃণমূলের সংগঠন নেই’, মমতার সফরের আগেই কটাক্ষ চিদম্বরমের]

তাতে খানিকটা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে সীতা শিবির। পরিস্থিতি জটিল হচ্ছে দেখে শনিবার রাতেই পলিটব্যুরোর বৈঠক ডাকেন পার্টির সাধারণ সম্পাদক। বৈঠকে প্রকাশ কারাত ও পিনারাই বিজয়নদের (Pinarayi Vijayan) কংগ্রেসের পাশে থাকার বিষয়টি বোঝাতে সক্ষম হন ইয়েচুরি। সূত্রের খবর, তিনি জানিয়ে দেন যে রাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে লড়াইয়ের প্রয়োজন রয়েছে সেখানে পার্টি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, নির্বাচনের আগে কোনও রাজ্যেই বিজেপির বিরুদ্ধে এক আসনের প্রার্থী তত্ত্বে যাওয়া হচ্ছে না। ভোটের পরে প্রয়োজন হলে বিজেপিকে ঠেকাতে কংগ্রেসকে সমর্থন করা যেতে পারে। আর তৃতীয় ফ্রন্ট গঠন করে নির্বাচনী লড়াইয়ে গেলে আখেরে বিজেপিকে (BJP) সুবিধা করে দেওয়া হবে বলেই মনে করেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে দিল্লিতে চিকিৎসাধীন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়, এখন কেমন আছেন?]

সীতার বক্তব্যে খানিকটা হলেও নমনীয় হয় কেরল লবি। বিষয়টি নিয়ে আগামী এপ্রিল মাসে কান্নুরে আয়োজিত পার্টি কংগ্রেসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যের সঙ্গে এখন সহমত হলেও পার্টি কংগ্রেস কারাত শিবির যে ভিন্ন কোন চাল দেবে সে ব্যাপারে কার্যত নিশ্চিত সীতা শিবির।

Advertisement
Next