Advertisement

প্রচণ্ড শীতেও টগবগে জওয়ানরা, লাদাখে সাধরণতন্ত্র দিবস পালন ITBP’র

01:19 PM Jan 26, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রচণ্ড ঠান্ডা। তাপমাত্রা হিমাঙ্কের প্রায় ২৫ ডিগ্রি নিচে। তুষারাবৃত লাদাখ (Ladakh) যেন বরফের মরুভূমি। এহেন পরিস্থিতিতেও সীমান্তে অত্যন্ত উৎসাহের সঙ্গে ৭২তম সাধারণতন্ত্র দিবস পালন করলেন ইন্দো-টিবেটান বর্ডার পুলিশের (ITBP) জওয়ানরা।

Advertisement

[আরও পড়ুন: শত্রু শিবিরে অগ্নিবর্ষণ করবে ‘আকাশ’, চিনকে নজরে রেখে ফের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতের]

সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে একটি বর্ডার আউটপোস্টে সকাল থেকে সাজ-সাজ রব পড়ে যায় ITBP’র জওয়ানদের মধ্যে। প্রচণ্ড ঠান্ডার মধ্যেও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জওয়ানরা। ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে চারদিক। বলে রাখা ভাল, সীমান্তে ওঁত পেতে রয়েছে হানাদার চিনা বাহিনী। সুযোগ পেলেই থাবা বাড়াতে প্রস্তুত লালফৌজ। এহেন পরিস্থিতিতে দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সীমান্তে অতন্দ্র প্রহরায় রয়েছে ইন্দো-টিবেটান বর্ডার পুলিশ। চিনের সঙ্গে সংঘাতের আবহে এই বাহিনীর শক্তিবৃদ্ধি করার পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রের। এবার অতিরিক্ত ১০ হাজার জওয়ান ভরতি করে আরও সাতটি নতুন ব্যাটালিয়ন তৈরি করতে চলেছে এই বাহিনী।

প্রায় ৯০ হাজার জওয়ান নিয়ে গঠিত ইন্দো-টিবেটান বর্ডার পুলিশ বাহিনী মূলত চিনের সঙ্গে সাড়ে তিন হাজার লম্বা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার সুরক্ষায় মোতায়েন থাকে। লাদাখের (Ladakh) কারাকোরাম গিরিপথ থেকে শুরু করে অরুণাচল প্রদেশের জাচেপ লা পর্যন্ত সীমান্তের নজরদারি করে ভারতের এই আধা সামরিক বাহিনীটি। ফলে পাহাড়ি অঞ্চলে লড়াই ও পালটা হামলায় রীতিমতো অভিজ্ঞ ITBP জওয়ানরা। এবার আরও ১০ হাজার জওয়ান যোগ হলে বাহিনীর মোট সদস্য সংখ্যা বেড়ে এক লক্ষে পৌঁছে যাবে।

উল্লেখ্য, গালওয়ান উপত্যকায় চিনা ফৌজের সঙ্গে তুমুল সংঘর্ষে লড়াই করেছিলেন ITBP’র জওয়ানরাও। পূর্ব লাদাখে ভারতীয় জমিতে চিনা হানাদারদের প্রবেশ করতে দেয়নি তাঁরা। গালওয়ান উপত্যকায় পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিল যে একনাগাড়ে প্রায় ২০ ঘণ্টা পর্যন্ত লড়াই করতে হয়েছে জওয়ানদের। পাহাড়ি অঞ্চলে লড়াইয়ের প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতার জেরে ভারতীয় আধাসামরিক বাহিনীতির কাছে রীতিমতো বেকায়দায় পড়েছিল সুশিক্ষিত লালফৌজের সৈনিকরা। শুধু তাই নয়, ভারতীয় ফৌজের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় সংঘর্ষস্থল থেকে আর্মির আহত জওয়ানদেরও উদ্ধার করেন ITBP’র সদস্যরা। এহেন সাহসিকতা ও চিনা ফৌজের হামলা রুখে দেওয়ার জন্য ২৯৪ ITBP জওয়ানকে সম্মানিত করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: সাধারণতন্ত্র দিবসে মহাবীর চক্রে সম্মানিত করা হবে গালওয়ানে শহিদ কর্নেল সন্তোষ বাবুকে]

Advertisement
Next