Advertisement

TMC in Tripura: মমতাকে অনুকরণ! ‘দিদিকে বলো’র ধাঁচে ত্রিপুরায় ‘মুখ্যমন্ত্রী হেল্পলাইন’চালু করছেন Biplab Deb

05:26 PM Sep 03, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এরাজ্যের ‘দিদিকে বলো’র (Didi Ke Bolo) ধাঁচে এবার ত্রিপুরাতেও চালু হচ্ছে ‘মুখ্যমন্ত্রী হেল্পলাইন’। ঠিক যেভাবে ‘দিদিকে বলো’র নম্বরে ফোন করে সাধারণ নাগরিকরা বিভিন্ন সমস্যার কথা সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তরে জানাতে পারতেন, সেভাবেই ত্রিপুরাতেও মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের (Biplab Deb) দেওয়া টোল ফ্রি নম্বরে ফোন করে নাগরিকরা নিজেদের সমস্যা, অভাব-অভিযোগ জানাতে পারবেন। মুখ্যমন্ত্রী নিজে সেই অভিযোগগুলির সমাধান করবেন।

Advertisement

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, এবার থেকে CM Helpline, ১৯০৫-এ ফোন করলেই নাগরিকরা সরাসরি নিজেদের সমস্যার কথা জানাতে পারবেন মুখ্যমন্ত্রীকে। ৬ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন এই হেল্পলাইন নম্বর চালু হয়ে যাবে ত্রিপুরায়। মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের ওএসডি সঞ্জয় মিশ্র জানিয়েছেন, জনগণের সমস্যার খুব দ্রুত সমাধানের জন্য এই ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাজ্যে তৃণমূলের উত্থানের আবহে বিপ্লব দেবের এই পদক্ষেপ রীতিমতো তাৎপর্যপূর্ণ।

[আরও পড়ুন: TMC In Tripura: তৃণমূলের শক্তি বাড়তেই ইস্তফা ত্রিপুরার স্পিকার রেবতীমোহন দাসের, বাড়ছে গুঞ্জন]

প্রসঙ্গত, এরাজ্যে ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে পরপর ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচি চালু করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের (TMC) খারাপ ফলের পর এই কর্মসূচি তৃণমূলের জন্য রীতিমতো ‘গেমচেঞ্জার’ হয়ে দাঁড়ায়। দলের নিষ্ক্রিয় কর্মীরা যেমন সক্রিয় হয়ে উঠেছিলেন, তেমনি সরকারের ভাবমূর্তিও উজ্বল হয়েছে।ত্রিপুরার বিপ্লব দেব সরকারও সম্ভবত সেই একই উদ্দেশে এই ধরনের টোল ফ্রি নম্বর চালু করতে চলেছে।

[আরও পড়ুন: JDU MLA: অন্তর্বাস পরেই রাজধানী এক্সপ্রেসে ঘোরাফেরা! জেডিইউ বিধায়কের অর্ধনগ্ন ছবি ভাইরাল]

এই উদ্যোগ নিয়ে অবশ্য ইতিমধ্যেই রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়ে গিয়েছে। তৃণমূলের বক্তব্য, ত্রিপুরায় বিজেপি (BJP) জনভিত্তি হারিয়েছে। তাই বাংলার বিভিন্ন প্রকল্প অনুকরণ করে প্রাসঙ্গিকতা ফিরে পেতে চাইছে। স্থানীয় বিজেপি নেতারা পালটা বলছেন, “এর সঙ্গে ‘দিদিকে বলো’র কোনও সম্পর্ক নেই। জনদরদী মুখ্যমন্ত্রী মানুষের সমস্যার সমাধান করতে এই উদ্যোগ নিয়েছে। সাধারণ মানুষ যাতে সহজেই সরকারি প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারে, সেটা নিশ্চিত করছে বিজেপি সরকার।”

Advertisement
Next