ব্রিটেনের নয়া করোনা স্ট্রেন সম্ভবত অনেক বেশি প্রাণঘাতী, আশঙ্কা বরিস জনসনের

03:31 PM Jan 23, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্রিটেনে (UK) সন্ধান মেলা করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) নয়া স্ট্রেন নিয়ে আতঙ্কের মধ্যেই আরও আশঙ্কার কথা শোনালেন সেদেশের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন (Boris Johnson)। তাঁর দাবি, আপাতত গবেষণায় যতটুকু দেখা গিয়েছে, তা থেকে মনে করা হচ্ছে এই নয়া স্ট্রেন করোনার আগের স্ট্রেনের থেকে অনেক বেশি প্রাণঘাতী। বিবিসি’র কাছে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

ঠিক কী বলেছেন তিনি? বরিসের কথায়, ”কেবল দ্রুত ছড়ানোই নয়, তার পাশাপাশি লন্ডন ও দক্ষিণপূর্ব ব্রিটেনে প্রথম দেখা মেলা এই স্ট্রেন থেকে মৃত্যুর হারও বেশি। এই ব্যাপারে বেশ কিছু প্রমাণ মিলেছে।” জানা গিয়েছে, ‘নিউ অ্যান্ড এমার্জিং রেসপিরেটরি ভাইরাস থ্রেটস অ্যাডভাইসরি গ্রুপে’র দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই এমন দাবি করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তবে বরিস একথা বললেও বিবিসি’র দাবি, ব্রিটেনের মুখ্য বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা স্যার প্যাট্রিক ভাল্লান্স মনে করছেন, যে তথ্যের ভিত্তিতে এমন দাবি করা হচ্ছে, তা ততটা মজবুত নয়।

[আরও পড়ুন: WHO-এর করোনা ভ্যাকসিন প্রকল্পে যোগদান আমেরিকার, বড় পদক্ষেপ বিডেন প্রশাসনের]

প্রসঙ্গত, এই প্রথম নয়া স্ট্রেন নিয়ে এমন দাবি করা হল। এই ‘বহুরূপী’ স্ট্রেন যে অনেক তাড়াতাড়ি ছড়ায়, সেটা ইতিমধ্যেই প্রমাণিত। কিন্তু তা যে আরও বেশি বিপজ্জনক, এমন কথা এর আগে শোনা যায়নি। বরং মনে করা হচ্ছিল, তুলনামূলক ভাবে এই স্ট্রেনে আক্রান্তদের মৃত্যুর সম্ভাবনা খানিকটা কমই। এমনকী, গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভরতি হওয়ার সম্ভাবনাও কম। সেই ধারণার উলটো কথা এবার শোনা গেল বরিস জনসনের মুখে।

Advertising
Advertising

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

এদিকে ব্রিটেনে অব্যাহত করোনা আতঙ্ক। সোমবার থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে দেশটির সমস্ত সীমান্ত। যে করেই হোক নয়া স্ট্রেনের হাত থেকে বাঁচতে মরিয়া বরিস প্রশাসন। কেবল ব্রিটেনের নিজস্ব স্ট্রেনই নয়, দক্ষিণ আফ্রিকার এক করোনা স্ট্রেনও সংক্রমণ ছড়াচ্ছে সেদেশে।

[আরও পড়ুন: রাশিয়ার সঙ্গে সমঝোতা! পরমাণু অস্ত্র সংক্রান্ত চুক্তির মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন আমেরিকার]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next