পোপ, রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিবের পাশেই মোদি, বিশ্বশান্তি ফেরাতে কমিটি চাইছেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট

11:13 AM Aug 12, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত ফেব্রুয়ারি থেকেই চলছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। সেই যুদ্ধ শেষ না হতেই এবার তাইওয়ানের সঙ্গে চিনের সংঘাত চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। যে কোনও মূহূর্তেই লালফৌজ প্রবেশ করতে পারে দ্বীপরাষ্ট্রটিতে। যুদ্ধ ও হিংসার এই অবিরল পুঁজরক্তের অসুখে ভুগছে পৃথিবী। এই হানাহানি বন্ধ করতে রাষ্ট্রসংঘের কাছে একটি শান্তি কমিটি তৈরির আরজি জানালেন মেক্সিকোর (Mexico) প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ ম্যানুয়াল লোপেজ ওবরাডোর। যে কমিটিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (PM Modi) রাখার কথা বলেছেন তিনি। বাকি দু’জন হলেন পোপ ফ্রান্সিস ও রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

আন্দ্রেজ জানিয়েছেন, ”সমস্ত এক দেশ একজোট হয়ে আগামী পাঁচ বছর যুদ্ধ বন্ধ রাখুক। যুদ্ধ বন্ধ হলেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে। বিশেষ করে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ।” আর এই পদক্ষেপের জন্যই মোদি, পোপ ও গুতেরেসকে নিয়ে কমিটি গড়তে চান তিনি। তাঁর কথায়, ”আমি এই প্রস্তাব লিখিত ভাবে রাষ্ট্রসংঘকে জানাব। আমার আশা আমি যা বলছি সংবাদমাধ্যম তা ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করবে।”

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: অনুব্রতর গ্রেপ্তারির পর উচ্ছ্বাস বিজেপির, বাঁকুড়ায় গুড়-বাতাসা দিয়ে চলল গো-সেবা!]

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্টের মতে, তিনজনের ওই কমিটি নিজেদের মধ্যে সাক্ষাৎ করে সর্বত্র যুদ্ধ বন্ধ করার একটি প্রস্তাব পেশ করবেন। সেই প্রস্তাব মেনে নিয়ে সব দেশ পাঁচ বছরের জন্য যুদ্ধ না করার পথে হাঁটবে। এই সময়কালে তারা নিজেদের দেশের মানুষদের সাহায্য করবে। বিশেষ করে যাঁরা যুদ্ধবিধ্বস্ত। পাঁচটি বছর সমস্ত উত্তেজনা, হিংসাকে সরিয়ে শান্তি প্রতিষ্ঠার কথাই বলেছেন তিনি।

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

কিন্তু কেন এই তিনজনকেই ওই কমিটির জন্য বাছতে চাইছেন আন্দ্রেজ? এপ্রসঙ্গে তাঁর যুক্তি, সমস্ত দেশের কাছেই পোপ, গুতেরেস ও মোদির একটা গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। আর তাই তাঁদের নিয়েই ওই কমিটি তৈরির প্রস্তাব দিচ্ছেন তিনি। আমেরিকা, রাশিয়া ও চিনের মতো বড় দেশও এই প্রস্তাবকে স্বাগত জানাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন। তাঁর মতে, বিশ্বশান্তির জন্য এই তিনজন যা প্রস্তাব দেবেন, তা বাকিরা মেনে নেবে। আর তারপর এক উন্নত সমাজব্যবস্থা তৈরির দিকে পদক্ষেপ করবে। উল্লেখ্য, এখনও পর্যন্ত মেক্সিকোর প্রেসিডেন্টের প্রস্তাবে কোনও দেশ প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

[আরও পড়ুন: দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছেন দাদা, শহিদ তরুণের মূর্তিতে রাখি পরালেন বোন]

Advertisement
Next